শিশুর ওপর বৈদ্যুতিক অস্ত্রের ব্যবহার: জাতিসংঘের তোপের মুখে যুক্তরাজ্য

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৫:২৫, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৩৫, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৬

শিশুদের ওপর বৈদ্যুতিক অস্ত্র ব্যবহার করে জাতিসংঘের তোপের মুখে পড়েছে যুক্তরাজ্য সরকার। পুলিশকে ৫০ হাজার ভোল্টের নকল পিস্তল ব্যবহার করার অনুমোদন দিয়ে শিশু অধিকার লঙ্ঘনের দায়ে পড়েছে যুক্তরাজ্য।

জাতিসংঘ সূত্র জানায়, যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে শিশুদের ওপর ওই বৈদ্যুতিক অস্ত্র ব্যবহার বিষয়ক তথ্য সরবরাহ করতে বলেছে জাতিসংঘ।ব্রিটিশ পুলিশ ২০০৩ সাল থেকে এই অস্ত্র ব্যবহার করে আসছে। এই অস্ত্রের ব্যবহার ক্রমেই বাড়ছে বলেও জানা গেছে। ইংল্যান্ড ও ওয়ালসে ২০১২ থেকে ২০১৩ সালে শিশুদের ওপর এই অস্ত্রের প্রয়োগ ৩৮ শতাংশ বেড়ে গেছে। 

4-taser-graphic

এই ধরনের অস্ত্রে দুটো ডার্ট ছোড়া হয়, তাতে ৫ সেকেন্ডের জন্য ৫০ হাজার ভোল্টের বিদ্যুৎ তরঙ্গ প্রবাহিত হয়। ফলে যার গায়ে এই ডার্ট নিক্ষেপ করা হয় তার পেশী ও স্নায়ু কিছুক্ষণের জন্য বিকল হয়ে যায়।
চিলড্রেন রাইটস অ্যালায়েন্স ফর ইংল্যান্ডের সহযোগী পরিচালক কারলা গারনিলাস বলেন, ‘শিশুদের ওপর এই অস্ত্রের প্রয়োগ তাদের মানবাধিকারকে গুরুতরভাবে আহত করে।জাতিসংঘের বারংবার আহ্বানেও যুক্তরাষ্ট্র সাড়া দেয়নি। এই অস্ত্রের ব্যবহারে শিশুদের শারীরিক ক্ষতির সমূহ সম্ভাবনা থাকে।’
এদিকে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, এই অস্ত্রের ব্যবহারকে একপেশেভাবে দেখার সুযোগ নেই। সময়বিশেষে সহিংস পরিস্থিতিতে শিশুদের রক্ষা করার জন্যও পুলিশকে এই অস্ত্র ব্যবহার করতে হয়। সূত্রঃ ইন্ডিপেন্ডেন্ট

/ইউআর/     

লাইভ

টপ