যুক্তরাজ্যে মানসিক স্বাস্থ্যসেবায় সংকট

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৫:২৮, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৪৯, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৬

যুক্তরাজ্যের মানসিক স্বাস্থ্যসেবা খাতে গুরুতর সংকটের তথ্যাদি পাওয়া গেছে সম্প্রতি ফাঁস হওয়া কিছু নথিতে।সরকারি এক টাস্কফোর্স এই সব প্রতিবেদন উদ্ধার ও প্রকাশ করেছে।

প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, মানসিক স্বাস্থ্যের চিকিৎসাধীন অনেকেই আত্নহত্যা করে থাকেন, মানসিক অসুস্থতার শিকার শিশুদের দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।  

মানসিক স্বাস্থ্যসেবা সরবরাহকারী দাতব্য প্রতিষ্ঠান মাইন্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পল ফারমার বলেন, ‘অনেকেই প্রয়োজন মাফিক ও সময় অনুযায়ী মানসিক স্বাস্থ্যসেবা পাচ্ছেন না।এতে মানবিক ক্ষয়ক্ষতির মাত্রা নিতান্তই অগ্রহণযোগ্য এবং আর্থিক ক্ষতিও প্রচুর।’ 

images

ওই প্রতিবেদনে যে সব তথ্য পাওয়া যায় তাতে জানা গেছে, দেশের বিভিন্ন স্থানে মানসিক স্বাস্থ্যসেবা নিতে আগ্রহী শিশুদের মধ্যে ১০ শতাংশের চিকিৎসকের সঙ্গে সাক্ষাৎকার বাতিল করা হয়েছে। কেননা, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সংখ্যা নিতান্তই অপ্রতুল। এ ছাড়াও দেশের অন্তত ১৫ শতাংশ অঞ্চলে নারীদের জন্য মানসিক স্বাস্থ্যসেবা পর্যাপ্ত নয়।

প্রতিবেদনে আরও জানা যায়, মানসিক জটিলতায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের শারিরীক স্বাস্থ্যসেবাতেও অবহেলা করা হয়ে থাকে। ধূমপান ও মাদকাসক্তির চিকিৎসাধীন ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে যা অত্যন্ত গুরুতর প্রভাব রাখে।

প্রসঙ্গত, এই বছর জানুয়ারি মাসেই প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন স্বাস্থ্যসেবা খাতকে সংস্কার করার পরিকল্পনা ঘোষণা করেন। তিনি ২০২০ সালের মধ্যে সন্তান জন্মদান সংক্রান্ত মানসিক জটিলতার চিকিৎসার জন্য ২৯০ মিলিয়ন পাউন্ড বরাদ্দ দেওয়ারও ঘোষণা করেন।

তবে ইংল্যান্ডের স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, ফাঁস হওয়া এই নথিপত্রগুলো চূড়ান্ত প্রতিবেদন নয়। সূত্রঃ দ্য গার্ডিয়ান

/ইউআর/  

লাইভ

টপ