নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলন 'রাষ্ট্রবিরোধী' স্লোগান দেননি কানহাইয়া, দাবি খোদ নিরাপত্তা সূত্রের!

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৮:৪৭, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:০০, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৬



আফজাল গুরুর ফাঁসি কার্যকরের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত ছাত্রনেতা কানহাইয়া কুমার সম্ভবত রাষ্ট্রবিরোধী শ্লোগান দেননি; এমন দাবি করেছে খোদ ভারতের নিরপত্তা সূত্র। জওহরলাল  নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট ইউনিয়নের এই সভাপতির গ্রেফতার নিয়ে যখন ভারতজুড়ে তোলপাড় চলছে, ঠিক তখন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গ্রহণ দিল্লির কিছু পুলিশ কর্মকর্তার অতি উৎসাহী ভূমিকার ফল হতে পারে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম স্ক্রল.ইন খবরটি নিশ্চিত করেছে।

গত সপ্তাহেই রাষ্ট্রদোহিতার অভিযোগে কানহাইয়া কুমারকে গ্রেফতার করা হয়।

নিরাপত্তা সংস্থাগুলো স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছে, আফজাল গুরুর স্মরণে একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কানহাইয়া কুমার। তবে এই অনুষ্ঠানে সম্ভবত তিনি ভারতবিরোধী কোনও স্লোগান বা বক্তব্য দেননি; যার কারণে তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ আনা যায়। কর্মকর্তারা বলছেন, ভারতবিরোধী স্লোগান দিয়েছিলেন কমিউনিস্ট পার্টি অব ইন্ডিয়ার (মাওবাদী) সহযোগী সংগঠন ডেমোক্রেটিক স্টুডেন্টস ইউনিয়নের (ডিএসইউ) সদস্যরা। এ সংগঠনটিকে উগ্র বামপন্থী হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

গ্রেফতারকৃত কানহাইয়া কুমার অল ইন্ডিয়া স্টুডেন্টস ফেডারেশনের প্রতিনিধিত্ব করেন। এ সংগঠনটি কমিউনিস্ট পার্টি অব ইন্ডিয়ার ছাত্র সংগঠন হিসেবে পরিচিত।

আফজাল গুরুর মৃত্যুদিবস স্মরণে আয়োজিত অনুষ্ঠান উপলক্ষে জেএনইউ ক্যাম্পাসে ব্যাপক পোস্টারিং করেন ডিএসইউ নেতারা। এসব পোস্টারে ওই অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের যোগদানের আহ্বান জানানো হয়।

নিরাপত্তা সংস্থাগুলো স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের দাবি, কানহাইয়া কুমার অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিয়েছেন এটা ঠিক। কিন্তু সেটা রাষ্ট্রবিরোধী ছিল না। সূত্র: স্ক্রল।

/এমপি/বিএ/

লাইভ

টপ