দক্ষিণ সুদানের জাতিসংঘ শিবিরে সংঘর্ষে নিহত ১৮

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৩:৩৮, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৫২, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৬

দক্ষিণ সুদানে জাতিগত সংঘর্ষদক্ষিণ সুদানে জাতিসংঘের এক শরণার্থী শিবিরে দুটি জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ১৮ জন নিহত হয়েছেন। ডক্টরস উইথাউট বর্ডারস নামের মানবিক চিকিৎসা সহায়তা সংস্থার বরাতে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েয়ে, নিহত ১৮ জনের মধ্যে তাদের দুই কর্মীও রয়েছেন। জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন এই সংঘর্ষে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।
বুধবার রাতে দক্ষিণ সুদানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় মাকালাল শহরে অবস্থিত ওই শরণার্থী শিবিরে শিলুক এবং দিনকা জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। জাতিসংঘ-পুলিশ জমায়েতকে নিবৃত্ত করতে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে।
ওই শরণার্থী শিবিরটি সুদানে জাতিসংঘের ছয়টি শিবিরের একটি। এসব শিবিরে প্রায় ২ লাখ উদ্বাস্তু মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন। মাকালাল শিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন ৪৭ হাজারের বেশি মানুষ। ডক্টরস উইথাউট বর্ডারস জানিয়েছে, গত বছরের তুলনায় এই সংখ্যাটা প্রায় দ্বিগুন। সংস্থাটির সমন্বয়ক মার্কাস বাকমান বলেছেন, ‘এখানে আসা বেশিরভাগ মানুষই এমন অঞ্চল থেকে এসেছেন, যেখানে কয়েক মাস ধরে কোনও ত্রাণ সহায়তা পৌঁছায়নি। সর্বোপরি নিরাপত্তার জন্যই তারা শরণার্থী শিবিরে গিয়েছেন।’ তিনি আরও বলেন, এটি হওয়া উচিত সংশ্লিষ্ট সকল অংশের সমন্বয়ে এক আশ্রয়স্থল।
এক লিখিত বক্তব্যে জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুনের মুখপাত্র বলেন, ‘সাধারণ মানুষ, জাতিসংঘ কর্মী এবং শান্তিবাহিনীর ওপর চালানো যে কোনো হামলাই যুদ্ধাপরাধের সামিল।’ মুনের ওই বক্তব্যে জাতিগত সংঘাত বন্ধের জন্য সকল পক্ষের সক্রিয় অংশগ্রহণের ওপর জোর দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে জন্মলাভের পর থেকেই জাতিগত সংঘাতে জর্জরিত দক্ষিণ সুদান। দুই বছর ধরে চলা গৃহযুদ্ধ চলছে সেখানে। সূত্র: সিএনএন

/এসএ/বিএ/

লাইভ

টপ