চারজনকে হত্যার রায়ে ৪ বছরের শিশুর যাবজ্জীবন!

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:২৫, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫১, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৬

মিশরের একটি আহত্যা মামলায় চার বছরের শিশুকে যাবজ্জীবন দিয়েছে মিসরের আদালতদালত চার বছরের একটি শিশুকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের শাস্তি দিয়েছেন। মঙ্গলবার দেশটির আদালত এই রায় দেন।
এই শিশুটি নাকি যখন খুনগুলো করেছিল তখন তার বয়স ছিল মাত্র ১ বছর! তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের মধ্যে ছিল চারটি হত্যা মামলা, ৮টি হত্যার চেষ্টা মামলা, সরকারি সম্পত্তি ভাংচুর করা এবং সেনা ও পুলিশ কর্মকর্তাদের হুমকি। আদালাতের রায় অনুযায়ী শিশুটি তার দ্বিতীয় জন্মদিনের অল্প কয়েকদিন আগে এইসব অপরাধ করে!
শিশুটির নাম আলমেদ মনসুর কারমি। অবশ্য মামলায় শুধু কারমিই অভিযুক্ত ছিলেন না। সঙ্গে ছিলেন আরও ১১৪ জন। মঙ্গলবার রায়ে তাদেরকেও যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়। হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছিল ২০১৪ সালের শুরুতে পশ্চিম কায়রোতে। রায় ঘোষণার সময় কারমি আদালতে উপস্থিত ছিল না।
শিশুটির আইনজীবী ফয়সাল আল সায়েদ জেরুজালেম পোস্টকে জানান, শিশুটির নাম ভুল করে যুক্ত হয়েছে। কিন্তু আদালত মানসুর কারমির জন্ম সনদ দেখতে চাননি। জন্ম দেখাতে পারলে প্রমাণ হতো যে,২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে কারমির জন্ম হয়েছে।
ফয়সাল জানান,রাজ্যের নিরাপত্তা বাহিনীর কাছে মনসুর কারমির জন্ম সনদ দেওয়া হয়েছিল যখন তাকে অভিযুক্তের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়। কিন্তু এরপর মামলাটি সামরিক আদালতে হস্তান্তর করা হয়। আদালতে কারমির অনুপস্থিতেই রায় ঘোষণা করা হয়। তিনি বলেন,এতে প্রমাণিত হয় বিচারকরা মামলার নথিপত্র ভালো করে পড়েননি।

আরেক আইনজীবী জানান,এই মামলার রায় প্রমাণ করে মিসরে কোনও ন্যায় বিচার পাওয়া যায় না। সূত্র: দ্য টেলিগ্রাফ।

/এএ/বিএ/

লাইভ

টপ