‘সুপার টিউসডে’তে জয় নিজেদের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ভাবতে শুরু করেছেন ট্রাম্প-হিলারি!

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৩:৪২, মার্চ ০২, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৩৯, মার্চ ০২, ২০১৬

ডোনাল্ড ট্রাম্প ও হিলারি ক্লিনটনমার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রার্থিতা বাছাইয়ের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ লড়াই ‘সুপার টিউসডে’ হয়ে উঠেছে হিলারি আর ট্রাম্পের দিন। বেশিরভাগ অঙ্গরাজ্যে জয় নিশ্চিত করে তারা নিজেদের মতো করে এক রকম নিশ্চিতই হয়েছে গেছেন যে, আসছে নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তারাই হতে যাচ্ছেন পরস্পরের প্রতিদ্বন্দ্বী। আর তাই বিজয়ী ভাষণে পরস্পরের দিকেই আঙ্গুল তুলেছেন দুই দলের দুই প্রার্থী। প্রার্থিতা নির্বাচনে নিজ দলের প্রতিদ্বন্দ্বীদের দিকে যেন নজর দেওয়ারই কিছু নেই আর।
আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর খবর অনুযায়ী, দুই দলের ১১টি করে অঙ্গরাজ্যের প্রাথমিক বাছাইয়ে তারা দুজনই সাতটি করে অঙ্গরাজ্যে জয় পেয়েছেন। এছাড়া ই্উএস টেরিটরি সামোয়াতেও জয় পেয়েছেন হিলারি। টেরিটরি শ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, আলাবামা, জর্জিয়া, টেনেসি এবং ভার্জিনিয়ার মতো অঙ্গরাজ্যগুলোতে নিজ নিজ দলের হয়ে হিলারি ও ট্রাম্প দুজনই একযোগে জয় পেয়েছেন। আর বাকি অঙ্গরাজ্যগুলোতে আলাদা করে জয় পেয়েছেন তারা। এদিকে হিলারির অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী বার্নি স্যানডার্স ৪টি অঙ্গরাজ্যে জয় নিশ্চিত করেছেন। রিপাবলিকান টেড ক্রুজ জয় পেয়েছেন দুটিতে আর মার্কো রুবিও একটিতে।
সুপার টিউসডেতে বেশিরভাগ অঙ্গরাজ্যে জয় নিশ্চিত করার পর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের জন্য প্রার্থিতা পাওয়ার ক্ষেত্রে অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেছেন হিলারি। জয়ের পর দেওয়া ভাষণে হিলারি নিজেকে অনেকটা সম্ভাব্য প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবেই উপস্থাপন করেছেন এবং ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী বলেই বিবেচনা করতে শুরু করেছেন। ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে হিলারি বলেন, ‘নির্বাচনে বিদ্বেষমূলক বক্তব্য আগে কখনও এতোটা মাত্রা ছাড়ায়নি এবং তার মাত্রা আর কমবে বলেও মনে হচ্ছে না।’ যুক্তরাষ্ট্রের এখন ভালোবাসা আর মাহাত্ম্য বেশি প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন হিলারি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থিতা প্রত্যাশীরা

একইরকমের আত্মবিশ্বাস ট্রাম্পের কণ্ঠেও শোনা গেছে। মনোনয়নের লড়াই বাদ দিয়ে একরকম মূল নির্বাচনি লড়াইয়ের সুর তুলেছেন তিনি। হিলারির ইমেইল বিতর্কের প্রসঙ্গ তুলে ট্রাম্প বলেন, ‘তিনি যা করেছেন তা একেবারেই অপরাধ। তাকে যদি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সুযোগ দেওয়া হয় তবেই দুঃখজনক।’ রিপাবলিকান দলকে এক করবেন বলেও ঘোষণা দেন ট্রাম্প।

মঙ্গলবার আলাবামা, আরকানসাস, জর্জিয়া, ম্যাসাচুসেটস, মিনেসোটা, ওকলাহোমা, টেনেসি, টেক্সাস, ভারমন্ট ও ভার্জিনিয়া- এই ১০টি অঙ্গরাজ্যে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান পার্টির প্রাথমিক বাছাই অনুষ্ঠিত হয়। তাছাড়া আলাস্কা অঙ্গরাজ্যে শুধু রিপাবলিকানদের এবং কলোরাডো অঙ্গরাজ্যে শুধু ডেমোক্র্যাটদের প্রাথমিক বাছাই হয়। এদিন সামোয়াতেও ডেমোক্র্যাট প্রার্থী বাছাই হয়।

মূলত ‘সুপার টুয়েসডে'তে ডেমোক্রেটিক পার্টি ও রিপাবলিকান পার্টি থেকে কোন কোন প্রার্থী চূড়ান্ত মনোনয়ন পাবেন তার একটা সম্ভাব্য ধারণা পাওয়া যায়। আর সেদিক থেকে ডেমোক্র্যাটদের হয়ে হিলারি এবং রিপাবলিকানদের হয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। যদিও ১ ফেব্রুয়ারি আইওয়া ককাসের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া দলীয় মনোনয়নের দৌড় শেষ হবে ১৪ জুন ওয়াশিংটন ডিসিতে। আর ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন।

এক নজরে ফলাফল

হিলারি ক্লিনটন(ডেমোক্র্যাট): আলাবামা, জর্জিয়া, টেনেসি, ভার্জিনিয়া, আরকানসাস, টেক্সাস, ম্যাসাচুসেটস, সামোয়া

বার্নি স্যান্ডার্স(ডেমোক্র্যাট): ভারমন্ট, ওকলাহোমা, মিনেসোটা, কলোরাডো

ডোনাল্ড ট্রাম্প (রিপাবলিকান): আলাবামা, জর্জিয়া, ম্যাসাচুসেটস, টেনেসি, ভার্জিনিয়া, আরকানসাস, ভারমন্ট

টেড ক্রুজ (রিপাবলিকান): টেক্সাস, ওকলাহোমা

মার্কো রুবিও(রিপাবলিকান): মিনেসোটা

সূত্র: বিবিসি, দ্য গার্ডিয়ান

লাইভ

টপ