ধর্মানুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ: এক রুশ নাগরিকের কারাদণ্ড

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৬:৩২, মার্চ ০৩, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৩২, মার্চ ০৩, ২০১৬

বাইবেল এবং ঈশ্বরকে অস্বীকার করেন ক্রাসনভইন্টারনেট ব্যবহার করে ‘ধর্মানুভূতিতে আঘাত দেওয়া’র অভিযোগে দক্ষিণ রাশিয়ার এক ব্যক্তিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ করা হয়েছে, ওই ব্যক্তি ঈশ্বরের অস্তিত্ব অস্বীকার করে একটি ওয়েবসাইটে মন্তব্য করেছেন।  
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়, ভিক্টর ক্রাসনভ নামক ওই ব্যক্তিকে বুধবার আদালতে হাজির করা হয়। তার আইনজীবী আন্দ্রে সাবিনিন সংবাদমাধ্যম এএফপিকে জানিয়েছেন, তাকে ২০১৩ সালের বিতর্কিত আইনে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই আইন অনুসারে, ইন্টারনেটে ‘ধর্মানুভূতিতে আঘাত’ দিলে অভিযুক্ত ব্যক্তি এক বছরের এবং সর্বজনের সামনে ‘ইচ্ছাকৃতভাবে ধর্মানুভূতিতে আঘাত’ দেওয়ার অপরাধে তিন বছরের সাজা হতে পারে।
ক্রাসনভের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে, ২০১৪ সালে তিনি নিজ শহর স্তাভরোপোলের একটি স্থানীয় হাস্য-রসাত্মক ওয়েবসাইটে এক লেখায় ইশ্বরের অস্তিত্ব অস্বীকার করেছেন। সেখানে তিনি লিখেছিলেন, ‘আমি বলতে চাই, বাইবেলে যা প্রচার করা হয়, তা হলো কতোগুলো ইহুদি কল্পকথার সংকলন। অন্তত আমার জন্য ঈশ্বর বলে কিছু নেই।’
গত বছর ক্রাসনভকে এক মাস মানসিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। তখন তাকে ‘মনোবৈকল্যহীন’ বলে উল্লেখ করা হয়েছিল। গত মাসে তার মামলার শুনানি শুরু হয়েছে। ক্রাসনভের আইনজীবী এএফপি-কে জানিয়েছেন, তার মক্কেল কেবল একজন সাধারণ নাস্তিক। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান  

/এসএ/এফইউ/

লাইভ

টপ