পাকিস্তান থেকে ১০ সন্ত্রাসী গুজরাটে, রাজ্যজুড়ে কড়া নিরাপত্তা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৪:৫৮, মার্চ ০৬, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৫৯, মার্চ ০৬, ২০১৬

১০ সন্দেহভাজন সন্ত্রাসী গুজরাটে প্রবেশ করেছে বলে পাকিস্তানের ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাডভাইজার (এনএসএ) নাসির খান জানজুয়া জানিয়েছেন। এর পরপরই গুজরাটজুড়ে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া সূত্রে জানা গেছে, পাকিস্তান ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাডভাইসার নাসির খান জানজুয়া ভারতের নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালকে জানিয়েছেন, নাশকতার লক্ষ্যে গুজরাটে রাজ্যে ১০ সন্ত্রাসী ঢুকে পড়েছে। ওই সন্ত্রাসীরা লস্কর-ই-তৈয়বা এবং জয়েশ-ই-মোহাম্মদের সদস্য বলে নাসির খান জানিয়েছেন।

শিবরাত্রি উপলক্ষে বিশাল জনসমাগমে সন্ত্রাসীরা নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড চালাতে পারে বলে মনে করছেন ভারতীয় গোয়েন্দারা। সোমবার দেশটিতে শিবরাত্রির উৎসব।

এদিকে সন্ত্রাসী অনুপ্রবেশের খবর আসার পর নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে গুজরাটজুড়ে। গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বাড়তি সেনা। পরিস্থিতি মোকাবিলায় গুজরাটের সব জেলা পুলিস সুপারের সঙ্গে জরুরি বৈঠকের ডাক দিয়েছেন গুজরাট পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা পিসি ঠাকুর। রাজ্য পুলিসকে এ বিষয়ে সতর্ক করেছে গোয়েন্দা সংস্থা। তাদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুরো রাজ্যে সতর্কতা জারি করেছে পুলিশ। পরিস্থিতি পর্যালোচনায় গুজরাট মন্ত্রিসভাতেও উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক ডাকা হয়েছে।

রাজ্যজুড়ে পুলিশের সতর্ক অবস্থান

নিরাপত্তা বাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত বেশ কয়েকটি যৌথ বাহিনী ইতোমধ্যেই বিভিন্ন এলাকায় অভিযান শুরু করেছে। এই অভিযানের অংশ হিসেবে ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ডের একটি দল আহমেদাবাদে পৌঁছেছে। তারা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে বলে জানা গেছে।

ধর্মীয় উপাসনালয়সহ বিভিন্ন স্থানে নিরাপত্তা আরো জোরদার করা হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ এবং সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে, পাঠানকোটে পশ্চিমাঞ্চলীয় আর্মি কমান্ডকার লেফটেন্যান্ট জেনারেল কেজে সিং সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আজ নিরাপত্তা সম্পর্কিত সমস্যা সামনে এসেছে। আপনারা জানেন, সামনেই শিবরাত্রি উৎসব রয়েছে। কিছু গোলযোগপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। আর এজন্যই এই অতিরিক্ত নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে।’ সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া।  

/এসএ/বিএ/

লাইভ

টপ