যে কারণে অসুস্থ নারীর পা কাটার সিদ্ধান্ত আদালতে গড়ালো

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৭:৪৬, মার্চ ২০, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৪৬, মার্চ ২০, ২০১৬

যুক্তরাজ্যের আদালতযুক্তরাজ্যের এক অসুস্থ নারী। পায়ের ক্ষত নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি তিনি। ডাক্তাররা মনে করছেন, পা কেটে ফেলাই একমাত্র সমাধান। তবে নিজে সিদ্ধান্ত নেওয়ার মতো মানসিক সক্ষমতা নেই ওই নারীর।
এই প্রেক্ষাপটেই সিদ্ধান্তের দায়িত্ব বর্তায় আদালতের কাঁধে। রোগীর শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে যুক্তরাজ্যের সুরক্ষাবিষক আদালত চিকিৎসকদের পা কাটার অনুমতি দিয়ে রুল জারি করেন।
এক গণশুনানিতে বিচারপতি মোস্টিন বলেন, ওই নারীকে বাঁচিয়ে রাখার স্বার্থেই তার হাঁটুর নিচ থেকে কেটে ফেলার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।  
এরআগে চিকিৎসকরা আদালতে সুপারিশ করেন, ৪৯ বছর বয়সী ওই নারীর পা যদি অবিলম্বে কেটে না ফেলা হয় তবে ধীরে ধীরে ক্ষত বেড়ে গিয়ে তার মৃত্যু হতে পারে। ওই নারীর মাও আদালতকে জানান যে তার মেয়ের নিজে সিদ্ধান্ত নেওয়ার মতো মানসিক সক্ষমতা নেই।
চিকিৎসদের মতে, পা কেটে ফেলা হলেও কৃত্রিম শিরা প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে ওই নারী আবারও চলাচল করার ক্ষমতা ফিরে পেতে পারেন। সূত্র: দ্য ইনডিপেনডেন্ট
/এফইউ/বিএ/

লাইভ

টপ