behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

অ্যারিজোনায় জিতলেন হিলারি ও ট্রাম্প

বিদেশ ডেস্ক১২:৫৭, মার্চ ২৩, ২০১৬

দলীয় মনোনয়নের দৌড়ে জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছেন হিলারি ক্লিনটন ও ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের অংশ হিসেবে মঙ্গলবার অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যে ডেমোক্রেট ও রিপাবলিকানদের বাছাইপর্ব অনুষ্ঠিত হয়। এতে দুই দল থেকেই বড় ব্যবধানে জয় পান যথাক্রমে হিলারি ক্লিনটন এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প।

হিলারি ক্লিনটন ও ডোনাল্ড ট্রাম্প।

কোনও কোনও অঙ্গরাজ্যে শুধু প্রাইমারি নির্বাচন হয়, আবার কোনও রাজ্যে শুধু ককাস নির্বাচন হয়। কোনও রাজ্যে প্রাইমারি ও ককাস দুটিই হয়। এবার এই প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে ১ ফেব্রুয়ারি। শেষ হওয়ার কথা ১৪ জুন। প্রাইমারি বা ককাস নির্বাচন সাধারণত সরাসরি নির্বাচনের সঙ্গে সম্পর্কিত নয়। ভোটাররা সরাসরি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে কে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তা নির্ধারণের সুযোগ পাওয়ার পরিবর্তে তারা নির্ধারণ করেন যে, প্রতিটি দলের কনভেনশনে দলের কোন প্রার্থী কতজন ডেলিগেট সংগ্রহ করতে পারলেন। চূড়ান্ত দলীয় কনভেনশনে ওই ডেলিগেটদের ভোটেই চূড়ান্ত প্রার্থিতা নিশ্চিত করা হয়।


অ্যারিজোনায় জয়ী হওয়ার মাধ্যমে হিলারি ক্লিনটন তার দলের মোট ২৮টি রাজ্যের মধ্যে ১৯টিতে বিজয়ী হলেন। এপির সবশেষ তথ্য অনুযায়ী ডেলিগেট সংগ্রহের ক্ষেত্রে হিলারি এ পর্যন্ত পেয়েছেন ১৬৮১ জনের সমর্থন। আর বার্নি স্যান্ডার্স নিশ্চিত করতে পেরেছেন কেবল ৯২৫ জনের সমর্থন। জয়ের জন্য পেতে হবে ২৩৮৩ জন ডেলিগেটের সমর্থন। প্রার্থিতা নিশ্চিত করতে গেলে হিলারিকে পেতে হবে আরও ৭০২ জনের সমর্থন। আর স্যান্ডার্সকে পেতে হবে আরও ১,৪৫৮ জনের সমর্থন। 

অন্যদিকে অ্যারিজোনায় বিজয়ী হয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প সব মিলিয়ে তার দলের ৩১টি রাজ্যের মধ্যে ২০টি রাজ্যে বিজয়ী হলেন। রিপাবলিকানদের প্রার্থিতা বাছাইয়ের ক্ষেত্রে ডেলিগেটদের সংখ্যা ২,৪৭২ জন। প্রার্থিতা পাওয়ার জন্য মনোনয়ন প্রত্যাশীদের অন্তত ১,২৩৭ জন ডেলিগেটের সমর্থন পেতে হবে। মনোনয়নের দৌড়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে এ পর্যন্ত সমর্থন দিয়েছেন ৭৩৯ জন ডেলিগেট। সে হিসেবে এখন তাকে পেতে হবে আর ৪৯৮ ডেলিগেটের সমর্থন। 

উল্লেখ্য, অ্যারিজোনায় লাতিন জনসংখ্যা বাড়ছে। তাদের সমর্থন পেয়েছেন হিলারি ক্লিনটন। সূত্র: বিবিসি।

/এমপি/বিএ/

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ