behind the news
Rehab ad on bangla tribune
Vision Refrigerator ad on bangla Tribune

ব্রাসেলস হামলায় ২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন, বিমানবন্দর খুলবে মঙ্গলবার

বিদেশ ডেস্ক২১:৩৪, মার্চ ২৬, ২০১৬

বেলজিয়ামের ব্রাসেলসে আত্মঘাতী হামলার ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেপ্তার দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আনা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের একজন  ফয়সাল সি এবং অপরজন আবু বকর এ। বৃহস্পতিবার পৃথক পৃথক অভিযানের মধ্য দিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছে প্রভাবশালী ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান। দুজনের বিরুদ্ধেই সন্ত্রাসবাদী কর্মকাণ্ডে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ আনা হয়েছে। এদিকে আগামি মঙ্গলবারের আগে হামলার শিকার হওয়া বিমানবন্দর খোলা হবে না বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

২২ মার্চ ২০১৬ মঙ্গলবার ব্রাসেলসের ব্যস্ততম জাভেনতেম বিমানবন্দর ও একটি মেট্রো স্টেশনে (পাতালরেল) এক ঘণ্টার ব্যবধানে এ জোড়া হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। ভয়াবহ ওই সন্ত্রাসী হামলায় অন্তত ৩৪ জন নিহত হন। আহত হন দুই শতাধিক। এ ঘটনার পর বেলজিয়ামে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়। ইউরোপজুড়ে জোরদার করা হয় নিরাপত্তাব্যবস্থা। ব্রাসেলসের সঙ্গে বিমান ও রেল যোগাযোগ বন্ধ করে দেয় ইউরোপ। হামলার দায় স্বীকার করে অনলাইনে বিবৃতি দেয় জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। এর চেয়েও ভয়াবহ হামলা আসছে বলেও হুমকি দিয়েছে তারা। যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বলছেন, বিবৃতিটি সঠিক হতে পারে।

ব্রাসেলসে প্রসিকিউটর কার্যালয়ের বাইরে থেকে বৃহস্পতিবার ফয়সাল সি কে আটক করা হয়। তবে তার বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে কোনো অস্ত্র পাওয়া যায়নি বলেও প্রসিকিউটর কার্যালয় থেকে দেওয়া ওই বিবৃতিতে বলা হয়। প্রসিকিউটরের কার্যালয় থেকে বলা হয়, ফয়সাল সি’র বিরুদ্ধে ‘সন্ত্রাসী সংগঠনের বিভিন্ন অপরাধমূলক কাছে অংশ নেওয়া, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে হত্য এবং হত্যা চেষ্টার’ অভিযোগ আনা হয়েছে।

স্থানীয় কয়েকটি গণমাধ্যম ফয়সাল সি কে বিমানবন্দরের সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়া দুই আত্মঘাতী হামলাকারীর সঙ্গে থাকা তৃতীয় ব্যক্তি বলে খবর প্রকাশ করেছে। তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়, সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়া তৃতীয় ব্যক্তির নাম ফয়সাল শেফু, ‍যিনি একজন ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক। তবে প্রসিকিউটরদের তরফে এ খবর নিশ্চিত করা হয়নি।

এদিকে অভিযুক্তদের অন্যজন আবু বকর এ-কে ব্রাসেলসের অন্য এলাকা থেকে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধেও সন্ত্রাসবাদে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ আনা হয়েছে।

নিহতদের স্মরণে প্রার্থনা

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত তিন দেশ থেকে ১২ সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবারের ওই হামলার পর বেলজিয়াম জুড়ে সাঁড়াশি অভিযান চালায় দেশটির নিরাপত্তাবাহিনী। উত্তরের শহর স্কায়েরবিক, পশ্চিমের শহর জেটে এবং ব্রাসেলসের কেন্দ্রস্থল থেকে বৃহস্পতিবার ছয়জন এবং শুক্রবার আরো তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া জার্মানি থেকে দুইজন এবং ফ্রান্স থেকে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এদিকে, বেলজিয়ামের কর্মকর্তারা মঙ্গলবারের বোমা হামলায় দ্বিতীয় আত্মঘাতী হামলাকারী নাজিম লাকরাওই-এর নাম উল্লেখ করে শুক্রবার বলেছেন, তার ডিএনএ গত বছর নভেম্বরে প্যারিস হামলার ঘটনাস্থল থেকেও পাওয়া গিয়েছিল।

এদিকে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ আজ শনিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসের ব্যস্ততম জাভেনতেম বিমানবন্দর আগামী মঙ্গলবারের আগে খুলছে না। এএফপির খবরে বলা হয়েছে, নতুন নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ ও বিমানবন্দরের ক্ষতিগ্রস্ত অংশ মেরামতের পর আগামী মঙ্গলবার বিমানবন্দরের কার্যক্রম পুনরায় শুরু হবে। তবে নতুন কী নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, সে বিষয়ে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ কিছু জানায়নি। সন্ত্রাসী হামলার পর অভিযোগ ওঠে, বিমানবন্দরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঢিলেঢালা ছিল। বহির্গমন হল পর্যন্ত যাত্রী যাওয়ার ক্ষেত্রে নিয়মমাফিক তল্লাশি করা হয়নি বলেও সমালোচনা চলছে। সূত্র: বিবিসি, গার্ডিয়ান, এএফপি

/বিএ/

Ifad ad on bangla tribune

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ