Vision  ad on bangla Tribune

ওয়াশিংটন ও আলাস্কায় জয় পেলেন স্যান্ডার্স

বিদেশ ডেস্ক০৯:১৯, মার্চ ২৭, ২০১৬

প্রেসিডেন্ট প্রার্থিতার জন্য দলীয় মনোনয়নের দৌড়ে ডেমোক্রেটিক পার্টি থেকে এবার গুরুত্বপূর্ণ দুটি অঙ্গরাজ্যে জয় পেলেন বার্নি স্যান্ডার্স। ওয়াশিংটন ও আলাস্কা অঙ্গরাজ্যে দলীয় বাছাইপর্বে নিজের জয় নিশ্চিত করেন তিনি।
এ জয়ের মধ্য দিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জেরে এগিয়ে থাকা সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের সঙ্গে দূরত্ব কিছুটা হলেও কমিয়ে আনলেন স্যান্ডার্স।

আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের অংশ হিসেবে শনিবার ওয়াশিংটন, আলাস্কা ও হাওয়াই অঙ্গরাজ্যে ডেমোক্রেটিক পার্টির বাছাইপর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

এখনও পর্যন্ত হাওয়াই অঙ্গরাজ্যের ফল পাওয়া না গেলেও বাকি দুই অঙ্গরাজ্যে নিজের অবস্থান দিয়ে সবাইকে চমকে দেন স্যান্ডার্স।

বার্নি স্যান্ডার্স

শনিবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়া তিন রাজ্যের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এখানে বার্নি স্যান্ডার্স পেয়েছেন ৭৬ শতাংশ প্রতিনিধির সমর্থন। বিপরীতে হিলারি ক্লিনটন পেয়েছেন মাত্র ২৪ শতাংশ।

আলাস্কায় ৭৯ শতাংশ প্রতিনিধির সমর্থন পান স্যান্ডার্স। তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি পেয়েছেন ২১ শতাংশ। এখন হাওয়াই অঙ্গরাজ্যের ফলের জন্য অপেক্ষা করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মনোনয়ন নিশ্চিতে কোনও কোনও অঙ্গরাজ্যে শুধু প্রাইমারি নির্বাচন হয়, আবার কোনও রাজ্যে শুধু ককাস নির্বাচন হয়। কোনও রাজ্যে প্রাইমারি ও ককাস দুটিই হয়। এবার এই প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে ১ ফেব্রুয়ারি। শেষ হওয়ার কথা ১৪ জুন। প্রাইমারি বা ককাস নির্বাচন সাধারণত সরাসরি নির্বাচনের সঙ্গে সম্পর্কিত নয়। ভোটাররা সরাসরি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে কে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তা নির্ধারণের সুযোগ পাওয়ার পরিবর্তে তারা নির্ধারণ করেন যে, প্রতিটি দলের কনভেনশনে দলের কোন প্রার্থী কতজন ডেলিগেট সংগ্রহ করতে পারলেন। চূড়ান্ত দলীয় কনভেনশনে ওই ডেলিগেটদের ভোটেই চূড়ান্ত প্রার্থিতা নিশ্চিত করা হয়।

ফল প্রকাশের আগেই অবশ্য এ তিন রাজ্যে জয়ের আশাবাদ ব্যক্ত করেছিলেন বার্নি স্যান্ডার্স। তিনি এসব রাজ্যে দীর্ঘদিন ধরে অনেক সমাবেশ করেছেন। তার সমাবেশে হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিও দেখা গেছে। সূত্র: বিবিসি।

/এমপি/

samsung ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ