behind the news
IPDC  ad on bangla Tribune
Vision  ad on bangla Tribune

মিসরীয় বিমানের 'ছিনতাইকারী'কে নিয়ে যা বললেন তার সাবেক স্ত্রী

বিদেশ ডেস্ক২০:২১, মার্চ ৩১, ২০১৬

মিসরীয় বিমান ছিনতাইকারী সাইফ এল-দিনের সাবেক স্ত্রী জানিয়েছেন তার প্রাক্তন স্বামী ছিলেন এক ‘ভয়াবহ ব্যক্তি’ যে কিনা মাদক ব্যবহার করতেন ও পরিবারের সদস্যদের শারিরীক নির্যাতন করতেন। কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, বিমান ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করেছেন সাইফ এল-দিন মুস্তাফা নামের।

সাইফের স্ত্রী মেরিনা পারাশাউ আরও জানিয়েছেন, ৭২ যাত্রীসহ মিসরীয় এয়ারবাস এ৩২০ ছিনতাইয়ের কারণ হিসেবে স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসার কথা জানিয়ে যে প্রতিবেদন এসেছে তা সর্বাংশে ভুল। তিনি আরও জানান, সাইফ তার সঙ্গে কথা বলতে চাননি। বরং পুলিশই তাকে সাইফের কণ্ঠস্বর শনাক্ত করতে বলেছিল।

518

সাইফ এল-দিন মুস্তফা আত্মপক্ষ সমর্থন করতে গিয়ে পুলিশকে বলেছেন, ‘যদি কেউ তার স্ত্রী ও সন্তানকে ২৪ বছর ধরে না দেখে থাকার পর তাদের দেখতে চায় এবং মিসর সরকার তা অনুমোদন না করে তবে তার কী করা উচিত?’ তিনি দাবি করেন, সাইপ্রাসে থাকা সাবেক স্ত্রী ও সন্তানদের দেখতেই তিনি এ ধরনের কাজ করেছেন।

বুধবার মুস্তফাকে সাইপ্রাসের আদালতে হাজির করা হয়। এখনও তার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আনা না হলেও ছিনতাই, বিস্ফোরক থাকার মিথ্যে তথ্য, অপহরণ এবং সন্ত্রাসবাদী কর্মকাণ্ডের হুমকি দেওয়া নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। এবিসি নিউজের খবরে বলা হয়েছে, অভিযোগ গঠনের উদ্দেশ্যে বুধবার তাকে ৮ দিনের আটকাদেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিন একটি পুলিশ জীপে করে আদালত ত্যাগ করার সময় বিজয়সূচক ‘ভি’ চিহ্ণ দেখান মুস্তফা।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার মিসরের স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় ইজিপ্ট এয়ারের বিমানটি আলেকজান্দ্রিয়া থেকে ৬২ জন আরোহী নিয়ে উড্ডয়ন করে। এর কিছু সময় পরই এটি ছিনতাইয়ের শিকার হয়। পরে বিমানটি সাইপ্রাসে জরুরি অবতরণে বাধ্য করা হয়। পাইলট দাবি করেছেন, ‘ছিনতাইকারী’ তার গায়ে বিস্ফোরক বেল্ট রয়েছে বলে হুমকি দিয়ে বিমানটি সাইপ্রাসে অবতরণ করাতে বাধ্য করেন। বেশ কয়েক ঘণ্টার জিম্মি নাটকের পর মঙ্গলবার বিকেলের দিকে আত্মসমর্পণ করেন মুস্তফা।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, আল জাজিরা।

/ইউআর/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ