behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

পুতিনের জাতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনী তৈরির ঘোষণার নেপথ্যে

বিদেশ ডেস্ক২০:২৮, এপ্রিল ০৬, ২০১৬





রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা দিয়েছেন, সন্ত্রাসবাদ এবং পরিকল্পিত অপরাধ রুখতে একটি নতুন জাতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনী সৃষ্টি করবেন তিনি। তবে কেউ কেউ মনে করছেন, আসছে সেপ্টেম্বরের নির্বাচনকে সামনে রেখে বিরোধী দমনের কাজে ব্যবহৃত হতে পারে এই বাহিনী।
ক্রেমলিনে শীর্ষ নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি পুতিনকে উদ্ধৃত করে লিখেছে, ‘সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে গেছে। আমরা নির্বাহী ক্ষমতা প্রয়োগের জন্য এক যুক্তরাষ্ট্রীয় বাহিনী গড়ে তুলছি’।
রুশ প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে সেনা নিয়ে, তাদের কমান্ডার এবং পুতিনের এক সময়কার দেহরক্ষী ভিক্টর জলোতভের নেতৃত্বে এই বাহিনী গঠন করা হবে। পুতিনের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, ওই বাহিনী দৈনন্দিন আইনশৃঙ্খলা রক্ষার কাজেও নিয়োজিত থাকতে পারে।
সমালোচকরা বলছেন, আসছে সেপ্টেম্বরের নির্বাচনকে সামনে রেখে এই বাহিনী সৃষ্টি করা হচ্ছে যেন জনতার বিক্ষোভ দমন করা যায়। তবে সেপ্টেম্বরের নির্বাচনকে সামনে রেখে এমন বাহিনী করার উদ্যোগ নেওয়া হয়নি বলে দাবি করেছেন পুতিনের ওই মুখপাত্র।


উল্লেখ্য, সেপ্টেম্বরের নির্বাচনকে সামনে রেখে পশ্চিমারা রাশিয়ার অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলাতে পারে বলে আগেই সতর্ক করেছেন পুতিন। তার অভিযোগ, বিক্ষোভ উসকে দিয়ে নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে পশ্চিমারা। তবে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন বরাবরই এইসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। সূত্র: বিবিসি
/বিএ/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ