মারমেইড বিচ রিসোর্টে ৩০ শতাংশ ছাড়

Send
জার্নি রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৫:৩০, এপ্রিল ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৩৯, এপ্রিল ১৮, ২০১৯

মারমেইড বিচ রিসোর্টসাগরে সূর্যাস্ত দেখা, সবুজ গাছ-গাছালিতে সাজানো বাগানের চোখজুড়ানো সৌন্দর্য উপভোগ, প্রকৃতির আলোছায়ার মাঝে মজাদার সামুদ্রিক খাবারের স্বাদ নেওয়া, পুলে সময় কাটানো— আধুনিকতা ও প্রকৃতির এমন সম্মিলন মেলে কক্সবাজারের পরিবেশবান্ধব মারমেইড বিচ রিসোর্টে। প্রিয়জনকে নিয়ে সেখানে বাঁশ-কাঠের তৈরি বাংলোতে থাকতে চাইলে এখনই জুতসই সময়!
মারমেইড বিচ রিসোর্টমারমেইড কর্তৃপক্ষ রুম ভাড়ায় ৩০ শতাংশ ছাড় দেওয়া হচ্ছে। এ সুযোগ থাকছে আগামী ৪ মে পর্যন্ত। ৩০ শতাংশ ছাড় দিয়ে কাপলদের জন্য বিচ বাংলোর ভাড়া প্রতি রাত ১০ হাজার ৬২৬ টাকা, বিচ ভিলা প্রতি রাত ১৪ হাজার ১১৪ টাকা, মারমেইড স্যুটস ১৪ হাজার ১৬৮ টাকা, পুল স্যুটস ২৩ হাজার ২৩ টাকা।
ফ্যামিলি বিচ ভিলাস (দুটি শোবার ঘর) প্রতি রাত ২২ হাজার ১৩৮ টাকা। এতে চার জন থাকা যাবে।
কাপলদের জন্য বিচ ভিলাসের প্রতি রাতের ভাড়া ৩১ হাজার ৮৭৮ টাকা। এতে একটি শোবার ঘর ছাড়াও আছে লিভিং রুম ও জাকুজ্জি।
রুম ভাড়ায় ১০ শতাংশ সার্ভিস চার্জ ও ১৫ শতাংশ ভ্যাট যুক্ত। প্রতিটি রুমের সঙ্গে সকালে দুই জনের সৌজন্য নাশতা থাকছে।
মারমেইড বিচ রিসোর্টের ঘরগুলোর ছাদ-চালা বাঁশ ও ছন দিয়ে তৈরি হয়েছে। এগুলো বাইরে থেকে দেখতে কুটিরের মতো। ভেতরে রয়েছে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা। আশপাশের নৈসর্গিক দৃশ্যের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে মাটি ও কাঠ রঙের ব্যবহার চোখে পড়ার মতো।
বেড়ানোর সময় রিসোর্টে পেশাদার আলোকচিত্রীদের দিয়ে ছবি তোলানোর সুযোগ রয়েছে। সেক্ষেত্রে ৬০টি ছবির জন্য গুনতে হবে ২ হাজার টাকা।
কক্সবাজার বিমানবন্দর অথবা বাসস্ট্যান্ড থেকে মারমেইড বিচ রিসোর্টে পৌঁছাতে রয়েছে পরিবহন ব্যবস্থা। সেজন্য সিএনজিতে ৪০০ টাকা ও মাইক্রোবাসে ওয়ান ওয়ে ভাড়া পড়বে ২ হাজার টাকা। চেক-ইনের সময় দুপুর ১টা, চেক আউট সকাল ১১টার মধ্যে। 

/জেএইচ/
টপ