২৫ তলা উঁচুতে তারের ওপর হেঁটে ভাইবোনের ইতিহাস

Send
জার্নি ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:৫৫, জুন ২৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৫৮, জুন ২৬, ২০১৯

টাইমস স্কয়ারের সড়ক থেকে ২৫ তলা উঁচুতে তারের ওপর হাঁটছেন লিজানা ওয়ালেন্ডা ও নিক ওয়ালেন্ডাবিশ্বকে আবারও তাক লাগিয়ে দিলো দ্য ফ্লাইং ওয়ালেন্ডাস। যুক্তরাষ্ট্রে নিউ ইয়র্কের টাইমস স্কয়ারের সড়ক থেকে ২৫ তলা সমান উঁচুতে টানানো তারের ওপর হাঁটলেন ভাইবোন। এবারই প্রথম সেখানে এমন দুঃসাহসী কাজ করলো কেউ। ফলে তৈরি হয়েছে ইতিহাস। অসংখ্য মানুষ এই ঘটনার সাক্ষী হয়েছেন। স্থানীয়দের পাশাপাশি তাদের মধ্যে বিভিন্ন দেশের ভ্রমণপ্রেমীরাও ছিলেন। 

গত ২৩ জুন খ্যাতিমান ডেয়ারডেভিল নিক ওয়ালেন্ডা ও তার বোন লিজানা ১ হাজার ৩০০ ফুট উঁচু জায়গা দিয়ে ওয়ান টাইমস স্কয়ার ভবন থেকে টু টাইমস স্কয়ার ভবন পাড়ি দিয়েছেন। তাদের এই স্টান্ট ছিল রুদ্ধশ্বাসপূর্ণ।

প্রথমে টু টাইমস স্কয়ার থেকে রাত ৯টা ২০ মিনিটে স্টান্ট দেখানো শুরু করেন নিক। এর এক মিনিট পর ওয়ান টাইমস স্কয়ার ভবন থেকে তারের ওপর হাঁটতে থাকেন লিজানা। ধীরে ধীরে তারা একে অপরের দিকে এগোন। স্টান্টের মধ্যেই চলছিল তাদের আলাপ।

লিজানা কখনও গান গেয়েছেন। মাঝে একটি যোগাযোগ ব্যবস্থার মাধ্যমে বাবার সঙ্গে কথা বলেন তারা। এবিসি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সারাবিশ্ব সেইসব শুনেছে। ১৭ মিনিট স্টান্ট করার পর তারা পাশাপাশি আসেন। লিজানা তখন তারের ওপর বসে পড়েন। এরপর নিক তাকে অতিক্রম করে যান। টানটান উত্তেজনায় দু’জনে দুটি ভবন পাড়ি দিতে সক্ষম হন।

নিকের জন্য এই স্টান্ট ছিল দীর্ঘদিনের স্বপ্নপূরণের মতো। ১৯২৮ সালে তার পরিবার ম্যাডিসন স্কয়ার গার্ডেনে স্টান্ট করেছিল। টাইমস স্কয়ার পাড়ি দিয়ে তাদের প্রতি সম্মান জানিয়েছেন বলে এবিসি নিউজকে জানান তিনি।

স্টান্টের আগে বোনকে নিয়ে চিন্তিত ছিলেন নিক। কারণ আড়াই বছরেরও কম সময় আগে গুরুতর আহত হয়েছিলেন লিজানা। তখন মহড়ায় ৩০ ফুট উঁচুতে টানানো দড়ি থেকে চারজনসহ পড়ে যান তিনি। সুস্থ হওয়ার পর এটাই ছিল তার প্রথম পারফর্মিং।

এদিকে ভাইকেও নিয়ে উদ্বিগ্ন ছিলেন লিজানা। কারণ তিনি জানেন, তাকে নিয়ে নিকের দুশ্চিন্তা হচ্ছিল। পারফরম্যান্স দেখানোর আগে উচ্চতার কারণে নার্ভাস ছিলেন এই তরুণী।

দুঃসাহসী স্টান্ট পারফরমারদের দ্য ফ্লাইং ওয়ালেন্ডাস বলা হয়, যারা কোনও নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছাড়া অনেক উঁচুতে দড়ি বা তারের ওপর হেঁটে বিস্মিত করেন। গ্রেট ওয়ালেন্ডাসের সপ্তম প্রজন্ম নিক ও লিজানা। তাদের প্রপিতামহ কার্ল ওয়ালেন্ডা জার্মানি থেকে সপরিবারে আমেরিকায় পাড়ি দেন। এরপর দ্য রিংলিং ব্রাদার্স ও বারনাম অ্যান্ড বেইলি সার্কাসে পারফর্ম করতে থাকেন তারা। ১৯৭৮ সালে পুয়ের্তোরিকোতে দুটি ভবনের মাঝে স্টান্ট করতে গিয়ে ৭৩ বছর বয়সে নিহত হন কার্ল ওয়ালেন্ডা।

সূত্র: সিএনএন

/জেএইচ/
টপ