হোটেল রুমে ঢুকে দেড় ঘণ্টা উড়োজাহাজে ভ্রমণ!

Send
জার্নি ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:০৭, জুলাই ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০৭, জুলাই ১২, ২০১৯

হানেদা এক্সেল হোটেল টোওকুর সুপিরিয়র ককপিট রুমহোটেল রুমে সাধারণত সৌজন্য হিসেবে নাশতা, চা-কফি কিংবা গোসলের পর পরার পোশাক (বাথরোব) ও রুমের ভেতর পায়ে রাখার স্লিপার মেলে। কিন্তু জাপানের হানেদা বিমানবন্দরের একটি হোটেল অতিথিদের জন্য অন্যকিছু ভেবেছে। এতে উড়োজাহাজ চালানোর অভিজ্ঞতা নেওয়ার সুযোগ রয়েছে!

টোকিওর হানেদা বিমানবন্দরের টার্মিনাল-২ ভবনের সঙ্গে হানেদা এক্সেল হোটেল টোওকু সংযুক্ত। এর একটি রুমে স্থাপন করা হয়েছে বোয়িং ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজের ককপিট।

আগামী ১৮ জুলাই থেকে সুপিরিয়র ককপিট রুমটি ভাড়া নেওয়া যাবে। এজন্য গুনতে হবে ২৩৪ মার্কিন ডলার (প্রায় ২০ হাজার টাকা)। তবে প্রশিক্ষকের উপস্থিতি ছাড়া পাইলটের আসনে বসা কিংবা ককপিটের কোনও কিছু ধরার অনুমতি দেওয়া হবে না।

সুপিরিয়র ককপিট রুমে বিশেষভাবে বানানো ককপিটটুইন রুমটিতে রাতে না থেকেও অতিথিরা দেড় ঘণ্টা উড়োজাহাজে ওড়ার মতো অভিজ্ঞতা নিতে পারবেন। তাদের সহযোগিতা করবেন একজন প্রশিক্ষক। এর মাধ্যমে হানেদা থেকে ওসাকা শহরের ইতামি বিমানবন্দরে ভ্রমণের অনুভূতি মিলবে। এক্ষেত্রে খরচ পড়বে ২৭৭ মার্কিন ডলার (২৩ হাজার ৫০০ টাকা)।

মার্কিন সংবাদ সংস্থা সিএনএনের দেওয়া তথ্যানুযায়ী, হানেদা এক্সেল হোটেল টোওকু কর্তৃপক্ষ রুমে ককপিট স্থাপনের জন্য ব্যয় করেছে ৯২ হাজার মার্কিন ডলার (প্রায় ৭৮ লাখ টাকা)। কম্পিউটারের কেরামতিতে বিমানের ককপিটের মতো দেখতে যন্ত্রটি বানানো হয়েছে। সাধারণ বৈমানিকদের প্রশিক্ষণে এটি ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

সুপিরিয়র ককপিট রুমে বিশেষভাবে বানানো ককপিটহোটেলটির জনসংযোগ ব্যবস্থাপক আকি হাগিওয়ারা জানান, এভিয়েশনে উৎসাহীদের আকর্ষণ করতে সুপিরিয়র ককপিট রুম যুক্ত করেছেন তারা। তাদের অন্যান্য কক্ষ থেকেও বিমানবন্দরের রানওয়ের নয়নাভিরাম সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়।

সূত্র: ডেইলি এক্সপ্রেস

/জেএইচ/
টপ