কাপ্তাই লেক: বাংলাদেশের অন্যতম সুন্দর হ্রদ (ভিডিও)

Send
জার্নি রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৫৫, অক্টোবর ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০০, অক্টোবর ১১, ২০১৯

কাপ্তাই হ্রদকাপ্তাই লেককে বলা হয় বাংলাদেশের অন্যতম সুন্দর হ্রদ। এ যেন অথৈ জল ও সবুজে পরিপূর্ণ বৈচিত্র্যের এক সমাহার। রাঙামাটি শহরের এই হ্রদের সঙ্গে পাহাড়ের অকৃত্রিম সহাবস্থান এককথায় অতুলনীয়।

কাপ্তাই লেকের সঙ্গে কর্ণফুলী, কাচালং ও মাইনী নদীর নিবিড় সংযোগ রয়েছে। ১৯৬০ সালে কর্ণফুলী নদীর ওপর বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য বাঁধ নির্মাণ করা হলে এই লেক সৃষ্টির প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। বাঁধ নির্মাণ করা হলে পানি সংরক্ষণের জন্য পাহাড়ের মধ্যকার সমতল ভূমি ও উপত্যকা ভরাট করার মাধ্যমে হ্রদটির জন্ম হয়।

কৃত্রিম নীল স্বচ্ছ জলে পরিপূর্ণ লেকটির আয়তন প্রায় ১১ হাজার বর্গ কিলোমিটার। হ্রদের বিশাল জলাধার দুটি সরু ও সুগভীর শুভলং চ্যানেলের মাধ্যমে যুক্ত হয়েছে। ফুরোমন পাহাড় চূড়া থেকে পাখির চোখে দেখা যায় কাপ্তাই লেকের বিস্তৃত স্বচ্ছ নীলাভ জলরাশি। ছোট ছোট ডিঙি নৌকা ছুটে চলছে জলের বুকে, জলরাশির মধ্যভাগে জেগে আছে ছোট ছোট সবুজ দ্বীপ।

৭২৫ বর্গকিলোমিটারের কাপ্তাই ছড়িয়ে আছে পাহাড়ের নানান প্রান্তে। কাপ্তাই লেকের অন্যতম দর্শনীয় স্থান শুভলং ঝরনা। বর্ষায় পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে এই ঝরনা। চারদিকে সুবিশাল সবুজ পাহাড়ের মাঝে এই ঝরনার পানি পড়ার দৃশ্য অপরূপ। শুভলংয়ের আশেপাশের পাহাড়গুলো খুবই উঁচু, খাড়া ও নয়নাভিরাম। কাপ্তাইয়ের স্বচ্ছ জলরাশির বুক চিরে শুভলংয়ের দিকে এগিয়ে গেলেই চোখে পড়বে নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক দৃশ্য।

চারপাশে কিছু আদিবাসী গ্রাম আছে। এছাড়া নতুন চালু হওয়া রাঙামাটি-কাপ্তাই সড়ক বেশ আকর্ষণ করে পর্যটকদের। কাপ্তাই লেক দেশের অন্যতম সেরা হ্রদ। দেরি না করে দেখে আসুন জলে নীল আকাশের প্রতিচ্ছবি এবং দূর পাহাড়ের অপরূপ সৌন্দর্য।

পাণ্ডুলিপি: আহসান রনি, ভিডিও সম্পাদনা: নাঈম সিদ্দিকী

 

/জেএইচ/
টপ