টাইমস অব ইন্ডিয়া কাশ্মিরকে ভারতীয় সেনাবাহিনীর কবরস্থানে পরিণত করার হুমকি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:১১, সেপ্টেম্বর ০৪, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১৪, সেপ্টেম্বর ০৪, ২০১৬

sunday times

কাশ্মিরের মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গি হিজবুল মুজাহিদিনের প্রধান সৈয়দ সালাউদ্দিন ঘোষণা করেছেন, তিনি কাশ্মির প্রসঙ্গে কোন রকম শান্তিপূর্ণ আলোচনার পথ রুদ্ধ করে দেবেন। শনিবার তিনি আত্মঘাতী বোমা হামলাকারীদের দিয়ে কাশ্মিরে রক্তগঙ্গা বইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। কাশ্মিরকে ভারতীয় সেনাসদস্যদের কবরস্থানে পরিণত করারও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন এই নেতা। টাইমস অব ইন্ডিয়া তাদের রবিবারের প্রিন্ট ভার্সনে সেই প্রত্যয়কেই প্রধান শিরোনাম করেছে।

শান্তিপূর্ণ আলোচনার যে কোন সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দিয়ে সালাহউদ্দিন বলেন, কাশ্মির সংকটের সমাধানে জঙ্গিবাদের কোন বিকল্প নেই। তিনি বলেন, ‘কাশ্মিরের নেতারা, হিজবুল সদস্যরা এবং জনগণ, সকলেই জানেন শান্তিপূর্ণ আলোচনার কোন পথ নেই।’

তিনি বলেন, ‘লক্ষ্য নির্ধারণ করে সশস্ত্র সংগ্রাম শুরু করা ছাড়া আর কোন পথ খোলা নেই।’     

পাকিস্তান অধ্যুষিত কাশ্মিরের রাজধানী মুজাফফরাবাদে বাইলা নূর শাহ এলাকায় নিজ কার্যালয়ে বসে টাইমস অব ইন্ডিয়াকে এক সাক্ষাৎকার দেন সালাহউদ্দিন। মুজাফফরাবাদ শহরটি লাইন অব কন্ট্রোলের ২২ কিলোমিটার পূর্বে ঝিলাম ও নিলাম নদীর তীরে অবস্থিত।পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদ থেকে এই শহরের দূরত্ব ১২৫ কিলোমিটার।

সালাহউদ্দিন একই সঙ্গে ইউনাইটেড জিহাদ কাউন্সিলেরও প্রধান। তিনি ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রসঙ্গে বলেন, ‘তারা যত বেশি সেনা মোতায়েন করবে, বিচ্ছিন্নতাবাদীদের আন্দোলন ততই জোরদার হবে। স্বাধীনতাকামীদের আত্মত্যাগ বৃথা যাবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদেরও আমাদের শক্তি প্রদর্শন করতে হবে।’

কাশ্মিরে নির্বাচন প্রক্রিয়া একটি অর্থহীন দেখানেপনা ছাড়া কিছুই নয়, এই দাবি করে সালাহউদ্দিন বলেন, ‘আমরা যে হাতে অস্ত্র তুলে নিয়েছি তার অন্যতম প্রধান কারণ এমন অর্থহীন, লোকদেখানো ও কারচুপির নির্বাচন।’

উল্লেখ্য, এখন সশস্ত্র সংগ্রামের পথ গ্রহণ করলেও সালাহউদ্দিন ১৯৮৭ সালে জম্মু ও কাশ্মিরের নির্বাচনে অংশ নেন। তিনি মুসলিম ইউনাইটেড ফন্টের হয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। পরে তিনি পাকিস্তানে চলে যান এবং পাকিস্তান তাকে সমাদরে গ্রহণ করে ইউজেসি প্রধানের দায়িত্ব দেয়।

সূত্র টাইমস অব ইন্ডিয়া

/ইউআর/বিএ/    

লাইভ

টপ