দ্য হিমালয়ান টাইমস নেপালে সোনা চোরাচালান মামলার আসামি শ্যাম ক্ষাত্রি কারাগারে, রিমান্ড

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:০৪, জুন ০১, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ০৮:০৬, জুন ০২, ২০১৮

নেপালে সাড়ে ৩৩ কেজি সোনা চোরাচালানের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত এসএসপি শ্যাম ক্ষাত্রিকে জেলে পাঠিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার মোরাং জেলার একটি আদালতে আত্মসমর্পণ করার পর তাকে চারদিনের রিমান্ডেও নেওয়া হয়। খবরটিকে শুক্রবার (১ জুন, ২০১৮) নিজেদের প্রধান শিরোনাম করেছে নেপালের শীর্ষস্থানীয় ইংরেজি সংবাদপত্র দ্য হিমালয়ান টাইমস।

শ্যাম ক্ষাত্রি বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১১টার আগেই আদালতে আত্মসমর্পন করেন। পরে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরপর আগে শোনা গিয়েছিল, সোনা চোরাচালানের খবর প্রকাশের পরই শ্যাম ক্ষাত্রি ভারতে পালিয়ে যান। বুধবার তিনি মোরাংয়ের বিরাটনগরে ফেরেন। তিনি অ্যাডভোকেট হেমরাজ পান্টের মাধ্যমে নিজেকে আদালতের সামনে উপস্থাপন করেন।

এর আগে এই চোরাচালানে অন্যতম প্রধান অভিযুক্ত সৌদামানী উপরেতি শ্যাম ক্ষাত্রির বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, ক্ষাত্রি মূলত পুলিশ কর্মর্তাদের সঙ্গে যোগসাজশ রাখতো। তাদের মধ্যে সাবেক ডিআইজি গোবিন্দ নিরাওলাও আছেন। তাকেও গত মাসে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

উপরেতি দাবি করেন, বিমানবন্দর থেকে অবৈধভাবে প্রতিকেজি সোনা বের করে আনতে ক্ষাত্রি ৫০ হাজার রুপি করে নিতেন। তিনি আরও বলেন, বিষ্ণু বাহাদুর খাদকা ও আম্বার বাহাদুর থাপা মাগারের সহায়তায় নিজের গাড়িতে করে চোরাচালানের মালগুলো বাইরে নিযে যেত ক্ষাত্রি।

/আরএ/

লাইভ

টপ