দ্য হিন্দু বিরোধ নিরসনে ভারতের সঙ্গে সংলাপ ‘আবশ্যক’: ইমরান খান

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৫:৩৩, আগস্ট ২২, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৩৪, আগস্ট ২২, ২০১৮

পাকিস্তানের নয়া প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, জম্মু ও কাশ্মিরসহ বিভিন্ন বিরোধ নিরসনে দিল্লি ও ইসলামাবাদের অবশ্যই সংলাপ হওয়া উচিত। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পাকিস্তানের সঙ্গে গঠনমূলক অংশগ্রহণের আহ্বান জানানোর পর ইমরান খান এই মন্তব্য করলেন। বুধবার ভারতের সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দু খবরটি প্রধান শিরোনাম প্রতিবেদন হিসেবে প্রকাশ করেছে।

দ্য হিন্দু

মঙ্গলবার টুইটারে দুটি পোস্টে ইমরান খান তার বন্ধু ও পাঞ্জাবের মন্ত্রী নভোজাত সিধুকে সমর্থন করেছেন। শনিবার পাকিস্তানে ইমরানের শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দেন সিধু। এ নিয়ে দেশে সমালোচনা ও বিতর্কের মুখে পড়েন ভারতের সাবেক এই ক্রিকেটার।

প্রথম টুইটে ইমরান লিখেছেন, পাকিস্তানে আমার শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার জন্য সিধুকে আমি ধন্যবাদ জানাই। তিনি ছিলেন একজন শান্তির দূত এবং তাকে পাকিস্তানের জনগণের ভালোবাসা দেওয়া হয়েছে। ভারতে যারা তার সমালোচনা করছেন তারা উপমহাদেশের শান্তি প্রক্রিয়াকে ক্ষতিগ্রস্ত করছেন। শান্তি ছাড়া আমাদের জনগণ উন্নতি করতে পারবেন না।

দ্বিতীয় টুইটে ইমরান লিখেছেন, কাশ্মিরসহ বিভিন্ন বিরোধ নিরসন ও এগিয়ে যেতে ভারত ও পাকিস্তানকে সংলাপে অবশ্যই বসতে হবে। উপমহাদেশের দারিদ্র্য দূরীকরণ ও মানুষের উন্নয়নের জন্য সংলাপে পার্থক্য ঘুচিয়ে আনতে হবে ও সক্রিয় হতে হবে।

এদিকে, চণ্ডিগড়ে পাকিস্তানের সেনাপ্রধানকে আলিঙ্গনের ইস্যুতে বিজেপির দ্বৈতনীতির সমালোচনা করেছেন সিধু। তিনি বলেন, যখন মোদি ভারতের প্রধানমন্তী হয়েছিলেন তিনি পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফসহ সার্ক দেশগুলোর নেতাদের শপথ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। ভারতের আসার পর উষ্ণ অভ্যর্থনা পেয়েছিলেন নওয়াজ। শুধু তাই নয়, হয়ত মনে কোনও আশায় নিয়ে আকস্মিকভাবে লাহোরে নওয়াজের পারিবারিক অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন এবং আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই অভিনন্দন জানিয়েছিলেন।

/এএ/

লাইভ

টপ