দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস ম্যানাফোর্ট নির্বাচনি তথ্য পাচার করেছিলেন রাশিয়ানদের কাছে

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:৫৫, জানুয়ারি ০৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:১৫, জানুয়ারি ১০, ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনি প্রচারণা শিবিরের প্রধান পল ম্যানাফোর্ট যে রাশিয়ানদের কাছে নির্বাচন সংক্রান্ত তথ্য হস্তান্তর করেছিলেন, তার একটি প্রমাণ ভুল করে ফাঁস হয়ে গেছে। পল ম্যানাফোর্টের আইনজীবী তার সপক্ষে প্রমাণ উপস্থাপন করতে গিয়ে গোপন নথিটি প্রকাশ করে ফেলেন। সংশ্লিষ্ট নথি থেকে এটাও প্রমাণিত হয়, ক্রাইমিয়া দখলের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করাতে ২০১৬ সালের নির্বাচনের সময় রাশিয়া বহুমুখী প্রচেষ্টা চালাচ্ছিল। পল ম্যানাফোর্ট ২০১৬ সালের মার্কিন নির্বাচন সংক্রান্ত তথ্য রাশিয়ানদের কাছে হস্তান্তর করেছিলেন। এ বিষয়ে মার্কিন সংবাদপত্র ‘দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস’ ০৯ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মুদ্রিত সংখ্যার একটি শিরোনাম করেছে, ‘ম্যানাফোর্ট গেইভ এ রাশিয়া লিয়াজোঁ টু থাউজেন্ড সিক্সটিন ভোটার ডাটা।’

পল ম্যানাফোর্ট একজন ব্যবসায়ী। দীর্ঘদিন ধরে তিনি রিপাবলিকান দলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ট্রাম্পের নির্বাচনি প্রচারণার সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্কের বিষয়ে তদন্তের দায়িত্ব পাওয়া রবার্ট মুলার তার বিরুদ্ধে মুদ্রা পাচারের মতো অভিযোগের পাশাপাশি প্রমাণ নষ্ট করার অভিযোগ এনেছেন। বিচার চলার এক পর্যায়ে ম্যানাফোর্টের জামিন বাতিল করতে গিয়ে আদালত মন্তব্য করেছিল, ‘এমন রায় দেওয়াটা আমার শখ নয়; কিন্তু আমি তো না দেখার ভান করে থাকতে পারি না। আপনি বিশ্বাস নষ্ট করেছেন।’

ম্যানাফোর্টের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, তিনি যে মস্কোপন্থী ইউক্রেনীয় রাজনৈতিক দলের পক্ষের তদবিরকারী, তা গোপন রেখেছিলেন। ইউক্রেনের সাবেক মস্কোপন্থী প্রেসিডেন্ট ভিক্তর ইয়ানুকোভিচের দলের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল। তাছাড়া, ইয়ানুকোভিচের দলের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা নিয়ে তাদের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রে তদবির করার প্রমাণ নষ্ট করেছেন তিনি।

২০১৮ সালের আগস্ট মাসে ম্যানাফোর্টের বিরুদ্ধে আটটি অভিযোগ প্রমাণিত হয়। এর পাঁচটি কর ফাঁকির, একটি বিদেশি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট না থাকার আর দুইটি ব্যাংক জালিয়াতির। তার ৮০ বছরের কারাদণ্ড হয়। পরে তদন্তকারী রবার্ট মুলারকে সহযোগিতা করার বিষয়ে তার চুক্তি হয়। কিন্তু সেক্ষেত্রেও তিনি বারংবার তদন্তকারীদের অসত্য তথ্য দিয়েছেন বলে অভিযোগ মুলারের। যে নথি ভুল করে প্রকাশ করা হয়ে গেছে সেই নথিটি দিয়ে মুলারের আইনজীবী প্রমাণ করতে চেয়েছিলেন, তদন্তকারীদের অসত্য তথ্য দেওয়ার যে অভিযোগ আনা হয়েছে মুলারের বিরুদ্ধে আনা হয়েছে তা সত্য নয়।

নথিতে এমন আরও তথ্য ছিল যা প্রমাণ করে ম্যানাফোর্ট তার রুশ সহযোগী কন্সটান্টিন কিলিমনিকের সঙ্গে ইউক্রেনে শান্তি প্রতিষ্ঠার বিষয়ে আলোচনা করেছেন। নির্বাচনি প্রচারণা চলার পুরো সময়টা জুড়ে রুশরা বহুমুখী প্রচেষ্টা চালিয়েছিল, যাতে ক্রাইমিয়া দখলের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করানো যায়।

সংশ্লিষ্ট নথি থেকে এটা স্পষ্ট নয় ম্যানাফোর্ট যে নির্বাচনি তথ্য কন্সটান্টিনকে দিয়েছিলেন তা কীভাবে ব্যবহৃত হয়েছে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট নিশ্চিত করেছেন, ২০১৬ সালের মার্চ থেকে আগস্ট পর্যন্ত যখন ম্যানাফোর্ট ট্রাম্পের নির্বাচনি শিবিরের প্রধানের দায়িত্ব পালন করছিলেন তখন রাশিয়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচার, ইমেইল চুরি এবং অন্যান্য কৌশলে ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের বিরুদ্ধে ট্র্যাম্পের প্রচারণাকে শক্তিশালী করে তোলার জন্য পূর্ণদ্যমে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল।

গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘ফরেন পলিসি রিসার্চ ইন্সটিটিউটের’ একজন জ্যেষ্ঠ গবেষক মন্তব্য করেছেন, ম্যানাফোর্টের আইনজীবীর ফাঁস করা ওই নথিই এখন পর্যন্ত ২০১৬ সালের মার্কিন নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপের বিষয়ে সবচেয়ে শক্তিশালী প্রমাণ। তবে ট্রাম্প নিজে কতটা এসবের বিষয়ে জানতেন সেটাই এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন।

/এএমএ/

লাইভ

টপ