দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস অযোধ্যা বিবাদ মধ্যস্থতার প্রশ্নে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে রায় স্থগিত

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:৪৩, মার্চ ০৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫০, মার্চ ০৭, ২০১৯

অযোধ্যা মামলায় জমি বিবাদ সংক্রান্ত বিষয়টি মধ্যস্থতার মাধ্যমে মেটানো যায় কিনা, সে নিয়ে বুধবারও (৬ মার্চ) কোনও রায় দেয়নি ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। এদিন মামলার শুনানিতে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বাধীন ৫ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ মধ্যস্থতাকারীদের নাম ঠিক করার প্রস্তাব দেন আবেদনকারীদের। বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) এ খবরটিকে প্রধান শিরোনাম করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রথম পাতা
উত্তরপ্রদেশের ফৈজাবাদে বাবরি মসজিদের অবস্থান৷ভারতীয় হিন্দুদের একাংশের দাবি,যেখানে মসজিদ গড়ে তোলা হয়েছে সেই জায়গাটি ছিল রামের জন্মভূমি,তা ভেঙে মসজিদ বানানো হয়। এ নিয়ে হিন্দু-মুসলিম বিরোধ বহুদিনের। ১৯৯২ সালে বিজেপি সরকার ক্ষমতাসীন থাকার সময়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় বাবরি মসজিদ। একে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় প্রাণ হারায় অন্তত ২ হাজার মানুষ। ভারতের প্রাচীন শহর অযোধ্যার ওই বিতর্কিত স্থানটি কোন সম্প্রদায়ের দখলে থাকবে,তা নিয়ে মামলা চলছে ৬০ বছর ধরে।

বুধবার (৬ মার্চ) আবারও এ মামলার শুনানি হয়। মধ্যস্থতার মাধ্যমে জমি বিবাদ মেটাতে রাজি মুসলিম পিটিশনকারীরা। তাদের আইনজীবী রাজীব ধাওয়ান এদিন আদালতে জানান, ‘মধ্যস্থতার ব্যাপারে সহমত মুসলিম পিটিশনকারীরা।’ অন্যদিকে, আইনজীবী রাম লালা বিরাজমান জানান, রাম জন্মভূমিতে মন্দির তৈরির জন্য মধ্যস্থতার প্রস্তাব আগেও দেওয়া হয়েছে। তবে তা ব্যর্থ হয়েছে। বরং মসজিদ তৈরির জন্য আলাদা জমি বরাদ্দ করা হোক।

মধ্যস্থতার প্যানেলে কারা থাকছেন, সে ব্যাপারে ঠিক করতে নির্দেশ দেয় শীর্ষ আদালত। এদিন শুনানিতে দেশের সর্বোচ্চ আদালত জানায়, ‘আমরা এ নিয়ে শিগগিরই রায় দিতে চাই।’

উল্লেখ্য, অযোধ্যা মামলায় তিন বিচারপতির লক্ষ্ণৌ বেঞ্চ ২০১০ সালে ৩ অগাস্ট সব পক্ষের বক্তব্য শোনার পর মধ্যস্থতার পথে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল। সমস্ত আইনজীবীদের চেম্বারে ডেকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল তাঁরা মিটমাট চান কিনা। এ প্রক্রিয়া সফল হয়নি, কারণ হিন্দু পক্ষ বলেছিল, এ প্রস্তাব তাদের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়।

/এফইউ/

লাইভ

টপ