দ্য হিন্দুস্তান টাইমস দুই হিন্দু কিশোরী অপহরণের ঘটনায় আবারও ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:২০, মার্চ ২৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:২৫, মার্চ ২৫, ২০১৯

পাকিস্তানে সিন্ধু প্রদেশে হোলির উত্‍‌সব চলাকালীন দুই হিন্দু কিশোরীকে অপহরণের অভিযোগ উঠেছে। শুধু অপহরণই নয়, ওই দুই কিশোরীকে তাদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর করে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে বলেও অভিযোগ তুলেছে সিন্ধুর সংখ্যালঘু সম্প্রদায়। এ ঘটনায় আবারও ভারত পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা শুরু হয়েছে। বাক-যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছেন দুই প্রতিবেশি দেশের দুই মন্ত্রী। সোমবার (২৫ মার্চ) এ খবরটিকে প্রথম পাতার শিরোনাম করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস। 

দ্য হিন্দুস্তান টাইমস
অভিযোগ উঠেছে, সিন্ধু প্রদেশের ঘোটকি এলাকা থেকে বুধবার (২০ মার্চ) রবীনা (১৬) ও রিনা (১৪) নামের দুই কিশোরীকে কে বা কারা তুলে নিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার ঘোটকি পুলিশ এফআইআর নিতে অস্বীকার করায়, হিন্দুরা রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করেন। পরিবারের দাবি, দুই কিশোরীকে জোর করে তুলে নিয়ে গিয়ে ইসলামে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে। তবে করাচির কেন্দ্রীয় পুলিশ দফতর থেকে দাবি করা হয়েছে, যে দুই কিশোরী অপহৃত বলে অভিযোগ করা হচ্ছে, তারা একটি ভিডিও বার্তায় স্বেচ্ছায় ঘর ছেড়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের কথা জানিয়েছে।

রবিবার (২৪ মার্চ) পাকিস্তানে নিয়োজিত ভারতের দূতের কাছে এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। টাইমস অফ ইন্ডিয়ার খবরকে ট্যাগ করে টুইটে রিপোর্ট চাওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।

এরপরই পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী একটি টুইট করেন। সেখানে তিনি লেখেন, এটা তার দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। 

ফাওয়াদের টুইটের জবাব দিয়ে পাল্টা টুইট করেন সুষমা। টুইটে তিনি লেখেন, 'জনাব মন্ত্রী, ২ হিন্দু কিশোরীকে অপহরণ করা ও জোর করে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত করার বিষয়ে আমি শুধু ইসলামাবাদে ভারতীয় হাই কমিশনের থেকে রিপোর্ট চেয়েছি। আপনার ভয় পাওয়ার জন্য এটাই যথেষ্ট ছিল। এতে আপনাদের অপরাধের ভাবনাই প্রমাণিত হয়।' 

/এফইউ/

লাইভ

টপ