behind the news
Rehab ad on bangla tribune
Vision Led ad on bangla Tribune

দ্য গার্ডিয়ানচাকরি খোয়ালেন কোলনের পুলিশ প্রধান

বিদেশ ডেস্ক১১:১৬, জানুয়ারি ০৯, ২০১৬

দ্য গার্ডিয়ানের প্রথম পাতাবর্ষবরণ উৎসবে ভিড়ের মধ্যে নারীদের ওপর সংঘবদ্ধ যৌন নিপীড়নের ঘটনা ঠেকাতে ব্যর্থতার দায়ে জার্মানির কোলন শহরের পুলিশ প্রধান ভলফগ্যাং আলবার্সকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। কোলন পুলিশ জানায় আলবার্সকে আগাম অবসরে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।
কোলন স্টেশনের বাইরে যৌন নিপীড়নের ঘটনা সমন্বিতভাবে করা হয়েছে বলে এক প্রত্যক্ষদর্শীর দাবির পরই আলবার্সের বিরুদ্ধে এমন ব্যবস্থা নেওয়া হল। ৩৫ বছর বয়সী ওই নারী প্রত্যক্ষদর্শীর অভিযোগ, নিপীড়নকারীরা যখন ভীড়ের মধ্যে আতশবাজি ফাটিয়ে যাচ্ছিলো তখনও পুলিশ নীরবে দাঁড়িয়ে ছিল।
আলবার্সকে অব্যাহতি দেওয়ার আগে এক বক্তব্যে কোলনের পুলিশের নেতৃত্ব নড়বড় হয়ে পড়েছে উল্লেখ করে হতাশা জানান শহরটির মেয়র হেনরিয়েটে রেকার।গত বৃহস্পতিবার (৩১ জানুয়ারি) রাতে নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে কোলন সিটি সেন্টার ও এর আশেপাশের এলাকায় প্রচুর মানুষ জড়ো হয়। ভিড়ের সুযোগে কোলন স্টেশন ও সিটি সেন্টারের মাঝামাঝি জায়গায় একদল তরুণ নারীদের ওপর যৌন নিপীড়ন চালায় বলে অভিযোগ ওঠে। কোলন ছাড়াও হামবুর্গ আর স্টুটগার্ট শহরেও একইধরনের ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে এ পর্যন্ত পুলিশের কাছে প্রায় ১শ’টি অভিযোগ এসেছে। এরমধ্যে দুই-তৃতীয়াংশ অভিযোগ যৌন নিপীড়নের। দুটি ধর্ষণের অভিযোগও রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, নিপীড়নকারীদের বয়স ১৫-৩৫ এর মধ্যে। তারা ৩০-৪০ জনের মতো করে একটি দল তৈরি করে আলাদা আলাদাভাবে ঘেরাও করে নিপীড়ন চালিয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তি আরব অথবা উত্তর আফ্রিকার নাগরিক হতে পারেন বলে অভিযোগ করা হলেও তাদের পরিচয় সম্পর্কে এখন পর্যন্ত কোনও তথ্য নিশ্চিত করা যায়নি। ঘটনার পর থেকেই দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার জন্য সমালোচিত হয়ে আসছে পুলিশ।

এদিকে বর্ষবরণে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় ৩১ জন সন্দেহভাজনকে শনাক্ত করার কথা জানিয়েছে জার্মান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এরমধ্যে ১৮ জনই অভিবাসন প্রত্যাশী। তবে বর্ষবরণের দিন তারা চুরিসহ হয়রানিমূলক অপরাধ করলেও যৌন নিপীড়নের সঙ্গে জড়িত ছিল না বলে ধারণা করা হচ্ছে। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

/এফইউ/

Ifad ad on bangla tribune

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ