behind the news
IPDC  ad on bangla Tribune
Vision  ad on bangla Tribune

চায়না ডেইলি‘স্পর্শকাতর বিষয় মোকাবেলা’র জন্যই যুক্তরাষ্ট্র সফর

বিদেশ ডেস্ক১৮:০৯, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৬

মঙ্গলবারের চায়না ডেইলির প্রথম পাতাদক্ষিণ চীন সাগরে চলমান মার্কিন-চীন উত্তেজনার মধ্যেই এ সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্র সফরে যাচ্ছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। সফরে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে স্পর্শকাতর বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হতে পারে। মঙ্গলবার বিষয়টি নিয়ে প্রধান খবর প্রকাশ করেছে চায়না ডেইলি।
প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, দক্ষিণ চীন সাগরে সামরিক শক্তি বৃদ্ধির সমালোচনা করায় যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনার প্রেক্ষিতে হাওয়াইয়ে মার্কিন প্রতিরক্ষা কর্মকর্তার কাছে চিঠি পাঠিয়েছে চীন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনিয়াইং সোমবার জানান, যুক্তরাষ্ট্র হাওয়াইয়ের প্রতিরক্ষায় যে ব্যবস্থা নিচ্ছে তার চীনের নিজের ভূখণ্ড রক্ষার গুরুত্ব ভিন্ন। চীনের সামরিক শক্তি বৃদ্ধি জরুরি।
নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নিশ্চিত করেছেন মঙ্গলবার থেকে বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্র সফরে যাচ্ছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সফরে রাষ্ট্রীয় সহযোগিতা গভীর করা এবং গঠনমূলকভাবে স্পর্শকাতর বিষয়গুলো মোকাবেলা করা হবে চীনের পক্ষ থেকে।  
তবে সফরের বিস্তারিত তথ্য জানানো হয়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, এক মাসের তৃতীয়বারের মতো মার্কিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির সঙ্গে বৈঠক করবেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে কূটনৈতিক উত্তেজনা বিরাজ করছে। দক্ষিণ চীন সাগরে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজের উপস্থিতি ও উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক বোমা পরীক্ষার পরই এই উত্তেজনা শুরু হয়।

গত ২৭ জানুয়ারি জন কেরি চীন সফরে এসে ওয়াংয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন। পরবর্তীতে ১২ ফেব্রুয়ারি জার্মানির মিউনিখেও দুই মন্ত্রী বৈঠক করেছেন।

চীনের রেনমিন বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক জিন ক্যানরং জানান, চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কে প্রতিযোগিতা ও সহযোগিতা পাশাপাশি অবস্থান করছে। দক্ষিণ চীন সাগরে সামরিক শক্তি বৃদ্ধি এতে খুব বড় কোনও পরিবর্তন আনবে না।

তিনি মনে করেন, দক্ষিণ চীন সাগরের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণযোগ্য।

/এএ/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ