ডনপেশোয়ারে ফের সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ১৪

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৬:৫৬, মার্চ ১৭, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৫৯, মার্চ ১৭, ২০১৬

পাকিস্তানের পেশোয়ারে সরকারি চাকরিজীবীদের বহনকারী একটি বাসে পেতে রাখা বোমার বিস্ফোরণে ১৪ জন নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন ২৫ জন। হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেছে পাকিস্তানে নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন লস্কর-ই-ইসলাম। এ ঘটনা নিয়ে বৃহস্পতিবার প্রধান শিরোনাম করেছে পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডন।

১৬ মার্চ ২০১৬ বুধবার সকালের এ হামলায় আহতদের নিকটস্থ লেডি রিডিং হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পেশোয়ারের সানেহরি মসজিদের পার্শ্ববর্তী এলাকায় বেসামরিক সরকারি কর্মকর্তাদের বহনকারী একটি বাসে এ হামলা চালানো হয়। বাসটি মারদান শহর থেকে খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের রাজধানী পেশোয়ারের উদ্দেশে যাত্রা করেছিল।

বিস্ফোরণের পরপরই আশেপাশের অধিবাসীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এবং এলাকাটি নিরাপত্তা বাহিনী ঘিরে ফেলে।

সুপারিনটেনডেন্ট অব পুলিশ মুহাম্মাদ কাসিফ জানান, বোমাটি বাসের পেছনের অংশে পেতে রাখা হয়েছিল।

স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা মোহাম্মদ কাশিফ ডনকে বলেন, বাসের ভেতরে রাখা বিস্ফোরকের কারণে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এই হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে নিহতদের প্রতি শোক প্রকাশ করেছেন।

পেশোয়ারে সরকারি চাকরিজীবীদের লক্ষ্য করে চালানো হামলার ঘটনা এবারই প্রথম নয়। ২০১২ ও ২০১৩ সালেও একই ধরনের হামলায় অন্ততপক্ষে ৩৮ জন নিহত হয়েছিলেন।

এছাড়া, ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পেশোয়ারে সেনাবাহিনী পরিচালিত একটি স্কুলে সন্ত্রাসী হামলায় ১৩৪ শিশু নিহত হয়। গত অক্টোবরে কোয়েটায় একটি যাত্রীবাহী একটি বাসে বোমা হামলায় নিহত হন অন্তত ১১ জন। বাসটি দিনশেষে কোয়েটা শহরের কেন্দ্র থেকে ঘরমুখো শ্রমিকদের বহন করছিল। সূত্র: ডন।

/এমপি/

লাইভ

টপ