পরিবেশবান্ধব অন্দরসজ্জার গুরুত্ব নিয়ে ‘ওয়ার্ল্ড ইন্টেরিওর ডে’ পালিত

Send
জুবলী রাহামাত
প্রকাশিত : ১৭:০১, মে ২৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৩৮, মে ২৬, ২০১৯

বহির্বিশ্বে প্রতি বছর মে মাসের শেষ শনিবার ‘ওয়ার্ল্ড ইন্টেরিয়র ডে’ বা বিশ্ব অন্দরসজ্জা দিবস পালিত হয়। বাংলাদেশে এবার প্রথমবারের মতো পালিত হলো দিনটি। ‘ওয়ার্ল্ড ইন্টেরিয়র ফেডারেশন’এর সঙ্গে যুক্ত হয়ে অন্দরসজ্জা প্রতিষ্ঠান  ক্রিয়েটিভ ফাইভ ও আর্কিডেন ইন্টেরিয়র দিনটি পালন করে।

আয়োজনের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল ‘ডিজাইনিং স্পেস, চেঞ্জিং লাইভস।’ বিশ্ব অন্দরসজ্জা দিবস উপলক্ষে আলোচনা অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হয় বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে।

একটি ঘরের বাইরের সাজসজ্জার ব্যাপারে যেমন গুরুত্ব দিতে হবে, ঠিক তেমনি ভেতরের দিকেও সমান গুরুত্ব দিতে হবে। গৃহসজ্জা যেন পরিবেশবান্ধব হয় সেটি নিয়েই আলোচনা করেন বক্তারা। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীর, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সভাপতি ড. সফিউদ্দিন আহমদ, এনআর খান অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটসের প্রকৌশলী তানিয়া করিম, বেক্সিমকোর তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের প্রধান কাজী আকরামুল হকসহ আরও অনেকে।
অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীর বলেন, ‘একটি বাড়ি বা ঘর নির্মাণ করেই কাজ শেষ হয়ে যায় না। সারাজীবনের মাথাগোঁজার ঠাঁইটি যেন স্বাস্থ্যকর হয়, সেদিকেও লক্ষ রাখতে হবে।’ প্রকৌশলী তানিয়া করিম বলেন, ‘প্রতিনিয়ত পরিবেশ দূষণের ফলে মানুষই তার আবাসস্থল ধ্বংস করছে। সেজন্য এখন গৃহনির্মাণের ক্ষেত্রে পরিবেশ সচেতনতার বিষয়টি লক্ষ্য রাখা হচ্ছে। কিন্তু এখানেই দায়িত্ব শেষ হয়ে যায় না। ঘরের অন্দরসজ্জাতেও পরিবেশের সঙ্গে সংশ্নিষ্টতা থাকতে হবে।’

বেক্সিমকোর তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের প্রধান কাজী আকরামুল হক তথ্যপ্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে কীভাবে অন্দরসজ্জাকে আরও বেশি পরিবেশবান্ধব করা যায়, সে বিষয়ে একটি প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন। ক্রিয়েটিভ ফাইভের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী সোহেলী সায়মা সেঁজুতি বলেন, ‘অন্দরসজ্জা দিবস বলে যে একটা দিবস আছে, তা অনেকেই জানতো না।  অন্দরসজ্জার ক্ষেত্রে সচেতনতা বাড়ানোর জন্যই এই অনুষ্ঠানটি আমরা আয়োজন করেছি। আজকের এই আলোচনা থেকে তরুণ ডিজাইননাররা নতুনভাবে চিন্তা করতে অনুপ্রাণিত হবে বলে আমাদের বিশ্বাস।’

/এনএ/

লাইভ

টপ