জামদানি উৎসব শুরু হচ্ছে ৬ সেপ্টেম্বর

Send
জুবলী রাহামাত
প্রকাশিত : ১৯:০০, সেপ্টেম্বর ০৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০১, সেপ্টেম্বর ০৩, ২০১৯

 


বর্তমান সময়ে উন্নতমানের সুতার অভাব এবং উৎপাদনের অত্যাধিক ব্যয় জামদানি বয়নে অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। জামদানির অভূতপুর্ব মূলানুগ অনুকরণে সমর্থ এদেশের বর্তমান প্রজন্মের বয়নশিল্পীদের অসামান্য কুশলতা তুলে ধরতেই বাংলাদেশ জাতীয় কারুশিল্প পরিষদ ও বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে আগামী ৬ সেপ্টেম্বর ঐতিহ্যের বিনির্মাণ শীর্ষক পাঁচ সপ্তাহব্যাপী আয়োজিত হতে যাচ্ছে জামদানি উৎসব।
আগামী ৬ সেপ্টেম্বর শুক্রবারে রাজধানীর ধানমন্ডিতে বেঙ্গল শিল্পালয়ে শুরু হতে যাচ্ছে জামদানি উৎসবের প্রদর্শনী। আজ (৩ সেপ্টেম্বর) বেঙ্গল বইয়ের চিলেকোঠায় উপস্থিত সাংবাদিকদের জামদানি উৎসব সম্পর্কে বলেন জাতীয় কারুশিল্প পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শেখ সাইফুর ইসলাম। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন কারুশিল্প পরিষদের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, জামদানি উৎসবের কিউরেটর চন্দ্রশেখর সাহা, মনিরা ইমদাদ, বয়নশিল্পী আবুল কাশেম । সংবাদ সম্মেলনটির সঞ্চালনা করেন বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক লুভা নাহিদ চৌধুরী।


প্রদর্শনীর কিউরেটর চন্দ্রশেখর সাহা জামদানি উৎসবের প্রকল্প বিষয়ক পরিসংখ্যানে বলেন, ‘উৎসবের সহযোগী প্রতিষ্ঠান রয়েছে ৪টি। এই ৪ টি প্রতিষ্ঠান হলো আড়ং, অজান্তা, কুমুদিনী ও টাঙ্গাইল শাড়ি কুটির। সংগৃহীত আদি জামদানীর সংখ্যা ১২টি। সমন্বয়কারী জামদানি তাঁতীর অংশগ্রহণ ১৭ জন, ওস্তাদ তাঁতির সংখ্যা ৫৬ জন, সাগরেদ তাঁতির অংশগ্রহণ ৫৬ জন,  উৎপাদিত কাপড়ের পরিমাণ  ৮০টি, সংগৃহীত জামদানী আলোকচিত্র ২০০টি। জামদানি নকশা নমুনা তৈরির বয়ন সময় ২২৫ দিন,  নতুন নকশা ৩২০টি।’ এই প্রকল্পে মোট সময় লেগেছে ২ বছর।
রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের এই দুই বছরের প্রচেষ্টার ফসল আমরা আগামী ৬ তারিখে দেখতে পারবো। আমাদের জামদানি উৎসব বাংলাদেশের ঐতিহ্যকে তুলে ধরবে।’
লুভা নাহিদ চৌধুরী বলেন, ‘নতুন প্রজন্ম আমাদের এই ঐতিহ্যকে যেন ধারণ করতে পারে, উপলব্ধি করতে পারে বয়নশিল্পীদের পরিশ্রম ও মেধাকে- এটাই আমাদের চাওয়া।’
‘ঐতিহ্যের বিনির্মাণ’ প্রদর্শনী বর্তমান প্রজন্মের বয়নশিল্পীদের দক্ষতা, প্রজ্ঞা, ও নৈপূণ্যের সাক্ষ্য বহন করে। প্রদর্শনী উপলক্ষে চারজন শ্রেষ্ঠ বয়নশিল্পী ও তাদের সহকারীদের ‘শ্রেষ্ঠ কারুশিল্পী’ পুরস্কার প্রদান করা হবে।
প্রদর্শনীটি  উদ্বোধন করবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী এবং ওয়ার্ল্ড ক্রাফটস কাউন্সিল এশিয়া প্যাসিফিক রিজিয়নের প্রেসিডেন্ট ড. গাদা হিজাউকি-কাদুমি। 

/এনএ/

লাইভ

টপ