behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

এখনই সময় ভ্রমণের!

লাইফস্টাইল ডেস্ক১৯:৫৬, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৫

ভ্রমণ

ডিসেম্বর প্রায় শেষ। শিশুদের স্কুল ছুটি, কাজের ব্যস্ততাও কম। প্রকৃতির সান্নিধ্যে হারিয়ে যাওয়ার জন্য আবহাওয়াটাও বেশ উপযুক্ত। তবে অজানার উদ্দেশ্যে বেরিয়ে পড়ার আগে ঠিকঠাক প্রস্তুতি নিতে ভুলবেন না। দেখা যায় বেড়াতে যাওয়ার বেশ কিছুদিন আগে থেকেই হয়তো শুরু করে দিয়েছেন গোছগাছ। অথচ শেষ সময় এসে খুঁজে পাচ্ছেন না টিকিট বা পাসপোর্টের মতো গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। আবার ঘুরতে যাওয়ার পর দেখলেন তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে আনা হয়নি দরকারি কোনো সরঞ্জাম। এ ধরনের অস্বস্তিকর অবস্থা এড়াতে বেড়ানোর পরিকল্পনা, প্রস্তুতি, গোছগাছ সবকিছুতেই চাই বাড়তি সতর্কতা। নজর রাখা দরকার ভ্রমণের টুকিটাকি বিষয়গুলোর প্রতিও।

কোথায় যাচ্ছেন

পাহাড় নাকি সমুদ্র? কোথায় ঘুরতে যাওয়া হবে এটি নিয়ে অনেক সময় আমরা দ্বিধায় পড়ে যাই। কোথায় যাচ্ছেন এবং কতদিনের জন্য যাচ্ছেন সেটি ঠিক করে ফেলুন শুরুতেই। দেশ বা দেশের বাইরে যেখানেই যান না কেন, জায়গাটি সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নেওয়া কিন্তু আপনার প্রস্তুতিরই একটি অংশ। সঙ্গে যাতায়াত ও থাকা-খাওয়ার সুব্যবস্থা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিন। হোটেলে থাকতে হলে আগে থেকেই বুকিং দিয়ে রাখুন। বুকিং দেওয়ার আগে কোনো নিরাপত্তাজনিত ঝুঁকি রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে ভুলবেন না। বাস বা ট্রেনের অগ্রিম টিকিটের ব্যবস্থাও করে ফেলতে হবে চটজলদি। দেশের বাইরে যেতে চাইলে পাসপোর্ট, ভিসা ও প্লেনের টিকিট নিশ্চিত করুন। প্রাথমিক পরিকল্পনা মোটামুটি হলে ঠিক করে ফেলুন বাজেটও। কত টাকা খরচ হবে থাকা-খাওয়া ও যাওয়া-আসায় হিসাব করে নিন।

সাগরে ভ্রমণ

গুছিয়ে নিন লাগেজ 

গোছগাছের জন্য বেশ খানিকটা সময় রাখবেন হাতে, যাতে প্রয়োজনীয় কোনো জিনিস বাদ না পড়ে যায়। পোশাক নেওয়ার ক্ষেত্রে জায়গা বুঝে পোশাক নির্বাচন করুন। যেমন কক্সবাজার কিংবা কুয়াকাটার সমুদ্রসৈকতে বেড়াতে যেতে চাইলে সমুদ্রের পানিতে নামার উপযোগী পোশাক নিন। এখন যেহেতু শীতের সময়, সেহেতু পর্যাপ্ত পরিমাণ গরম কাপড় নিয়ে নিন। পাহাড়ে রাত কাটাতে চাইলে তাঁবু ও রাতযাপনের আনুসাঙ্গিক জিনিসপত্র গুছিয়ে নিন। আবার দেশের বাইরে যেতে চাইলে তার জন্য দরকার বাড়তি ও দীর্ঘমেয়াদি প্রস্তুতি। সাবান, শ্যাম্পু, পেস্ট, ব্রাশ, বডি স্প্রে, পারফিউম, মোজা, মোবাইলের চার্জার ইত্যাদি গুছিয়ে নিন সচেতনভাবে। ভ্রমণের আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র যেমন বাইনোকুলার, ক্যামেরা, ম্যাপ, সানগ্গ্নাস, ছাতা, টুপি, বুট জুতা ইত্যাদি যেন বাদ না পড়ে যায়। সম্ভব হলে গোছগাছের সরঞ্জামগুলোর একটি তালিকা তৈরি করে ফেলুন। তারপর সে তালিকা অনুযায়ী গোছগাছ করুন। এতে ঝক্কি কমবে। বহন করার ব্যাগটি টেকসই কিনা তা যাচাই করে নিন। শপিং করার পরিকল্পনা থাকলে অবশ্যই অতিরিক্ত জিনিস বহনের ব্যবস্থা রাখবেন। 

গুছিয়ে নিন লাগেজপ্রয়োজনীয় কাগজপত্র থাকুক সুরক্ষিত 

বাস, ট্রেন বা প্লেনের টিকিট, পাসপোর্ট, ভিসা ইত্যাদি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কাপড়-চোপড়ের সঙ্গে একই ব্যাগে না রেখে আলাদা জায়গায় রাখুন। সুটকেসের পকেট বা ছোট পার্সে রাখতে পারেন। যেন চট করে খুঁজে পাওয়া যায়। সাবধানতার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র একটি করে ফটোকপি করে রাখতে পারেন। এছাড়া টাকা-পয়সা, এটিএম কার্ড, চেকবই, ক্রেডিট কার্ড ইত্যাদি সুরক্ষিত কোনো স্থানে রাখুন।

সঙ্গে রাখুন প্রাথমিক চিকিৎসা বক্স 

যেখানেই যান না কেন সঙ্গে অবশ্যই প্রাথমিক চিকিৎসার একটি বক্স রাখবেন। সেখানে থাকতে পারে অ্যান্টিসেপটিক মলম, অ্যান্টিসেপটিক লোশন, গজ ও ব্যান্ডেজ, কাঁচি, কয়েক প্যাকেট খাবার স্যালাইন, জ্বর ও ব্যথার জন্য এসপিরিন বা প্যারাসিটামল ট্যাবলেট, এসিডিটির জন্য এন্টাসিড ট্যাবলেট, বমির জন্য এভোমিন বা ইনারজিন ট্যাবলেট, সর্দি, কাশি বা এলার্জির জন্য অ্যান্টি-হিস্টাসিন জাতীয় ওষুধ। স্বাস্থ্য বিষয়ক যে কোনো জিজ্ঞাসার জন্য ফ্যামিলি ডাক্তারের ফোন নম্বর কাছেই রাখুন।

শিশুর জন্য প্রস্তুতি 

পরিবারে যদি থাকে শিশু তবে তার গোছগাছে বাড়তি মনোযোগ দিন। কারণ সংসারে যে মানুষটি সবচেয়ে ছোট, দেখা যায় তার জিনিসপত্রই সবচেয়ে বেশি। এমনিতেই পরিচিত পরিবেশ ছেড়ে শিশু অস্বস্তিবোধ করে। তাই সম্ভব হলে প্রয়োজনীয় জিনিসের পাশাপাশি শিশুর বালিশ, লেপ, খেলনা সঙ্গে নিয়ে নিন। শিশুর জন্য আলাদা একটি ব্যাগ নিতে পারলে সবচেয়ে ভালো হয়। 

 

/এনএ/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ