Vision  ad on bangla Tribune

ঘরের ভেতর একটু আড়াল!

লাইফস্টাইল ডেস্ক১৭:৪৬, জানুয়ারি ১২, ২০১৬

ঘরের ভেতর আড়াল

একটি বড় ঘরের মাঝে খানিকটা জায়গা নিজের মতো করে পাওয়া গেলে কেমন হয়? নিশ্চয়ই বেশ ভালো! মনের মতো করে সাজিয়েও নেওয়া যাবে নিজের ছোট্ট জগতটি। একটি ঘরের সাথে আরেকটি ঘরের সংযোগস্থলটি সাজিয়ে নিতে পারেন অস্থায়ী দেয়াল দিয়ে। আবার চাইলে ঘরের মাঝেই তৈরি করে নিতে পারেন একটুখানি আড়াল। নান্দনিক ডিজাইনের মানানসই পার্টিশন অন্দরের সৌন্দর্য বাড়িয়ে দেবে বহুগুণ।পার্টিশন নির্বাচনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনের বিষয়টি মাথায় রাখা জরুরি। কেন সেটা ব্যবহার করা হচ্ছে সেদিকটা বুঝে বেছে নিতে হবে পার্টিশন। যেহেতু অতিথিদের আপ্যায়ন করা হয় বসার ঘরে সেহেতু অন্দরের সাথে বসার ঘরের সংযোগ পথটি আড়াল করা জরুরি। না হলে আপনার পাশাপাশি অস্বস্তিবোধ করতে পারেন অতিথিও। তবে যাদের ড্রয়ং কাম ডাইনিং রুম, তারা যখন মাঝে অস্থায়ী একটি দেয়াল তুলে দিবেন তখন সেটার বাহ্যিক সৌন্দর্যটাও বিবেচনায় রাখতে হবে।

ঘরের ভেতর আড়ালবিভিন্ন উপকরণের পার্টিশন বেছে নিতে পারেন ড্রয়িংরুমের জন্য। পার্টিশনের সাথে ঘরের বাকি আসবাবের সঠিক সামঞ্জস্য থাকা জরুরী। ঘরে যদি থাকে দেশিয় আবহ তবে বাঁশ বা বেতের পার্টিশনে নান্দনিকতা নিয়ে আসতে পারেন। জমকালো আসবাবে সজ্জিত ঘরে আবার ডেকোরেটিভ গ্লাসের পার্টিশন বেশ লাগবে। এছাড়া কাঠ, পারটেক্স বা বোর্ডের দেয়াল দিয়েও আড়াল করে নিতে পারেন অন্দর। ঝিনুক, শামুক,কড়ি, সিরামিক, পুঁতি কিংবা পাটের দেয়ালও ব্যবহার করতে পারেন। বেশ ভিন্নতা চলে আসবে ঘরের সাজে। আজকাল রঙিন কাগজের কিংবা কাপড়ের দেয়ালও বেশ জনপ্রিয়। কাঠের উপর নিখুঁত কারুকাজ করা নজরকাড়া পার্টিশন অন্দরে নিয়ে আসবে শৈল্পিক ছোঁয়া। ঘরের ভেতর আলো বাতাস প্রবেশ করাতে চাইলে খাঁজকাটা পার্টিশন বেছে নিতে পারেন।

বেতের পার্টিশন

পার্টিশনে কাচ, পুঁতি কিংবা পাথর বসিয়ে বাড়িয়ে নিতে পারেন এর জৌলুস।  চাইলে বসার ঘরের মাঝে স্লাইডিং ডোর বা পাল্লা লাগিয়ে দেওয়া যায়। তবে এগুলো লাগানো বেশ ঝামেলাপূর্ণ। কাঁচের দেয়াল দিয়েও আলাদা করে ফেলতে পারেন ঘরকে। তবে সেক্ষেত্রে টেনে খোলা যায় এমন ধরণের পার্টিশন হলে ভালো হয়। ঘরের মধ্যে একটুখানি আড়াল করে শিশুদের পড়ার জায়গা করে দিতে পারেন। তবে সেক্ষেত্রে পার্টিশনটা একটু মোটা হলে ভালো হয়। এতে মনঃসংযোগে ব্যাঘাত ঘটবে না। রান্নাঘর ও খাবার ঘরের মাঝে ভারি বুননের পার্টিশন দেবেন না। এতে রান্নার ধোয়া আটকে পড়ে অস্বস্তিকর পরিবেশের সৃষ্টি হবে। এক্ষেত্রে হালকা ধরণের পার্টিশন দিন যা প্রয়োজনমতো গুটিয়ে ফেলা যাবে। অন্যান্য ঘর থেকে ফ্যামিলি লিভিং রুমকে স্বতন্ত্র করতে চাইলেও ব্যবহার করতে পারেন পার্টিশন।

ঘরে রাখতে পারেন চমৎকার নকশার পার্টিশন
অনেকে আবার বড় বারান্দার মাঝে খানিকটা আড়াল করে অপ্রয়োজনীয় জিনিস রাখেন। পার্টিশন নির্বাচনের ক্ষেত্রে ঘরের আকার আয়তনের কথা মাথায় রাখা উচিত। জমকালো ও ভারি নকশার পার্টিশন ভেতরের ঘরে না রাখাই ভালো। এ ধরনের দেয়াল রাখুন অতিথিদের ঘরে। ছোট ঘরে একাধিক পার্টিশন রাখতে যাবেন না। এতে গাদাগাদি ঘরকে অস্বস্তিকর দেখাবে। ডিজাইন বুঝে ইনডোর প্লান্ট বা শো পিস দিয়ে সাজিয়ে নিতে পারেন পার্টিশনের সম্মুখ ভাগ।  

/এনএ/

samsung ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ