'মহাজাগতিক বিশালতায় দূর হোক মনের ক্ষুদ্রতা'

Send
সুরবি প্রত্যয়ী
প্রকাশিত : ২১:০০, জানুয়ারি ১৭, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৪৬, জানুয়ারি ১৭, ২০১৬

সায়েন্স ইন্সপায়ার্ড পেইন্টিং এক্সিবিশন

কোথাও প্রবল বেগে ছুটে আসছে উল্কা, আবার কোথাও রহস্যময় ছায়াপথ আর নক্ষত্রপুঞ্জের মেলা। যেন পৃথিবীর বাইরের জগত এটি! মহাজাগতিক এ দুনিয়ার খোঁজ পেতে চাইলে চলে আসতে পারেন ধানমন্ডির দৃক গ্যালারিতে। মহাজাগতিক বিশালতায় মনের সকল ক্ষুদ্রতা ঘুচিয়ে দেওয়ার প্রত্যয় নিয়ে দৃক গ্যালারিতে চলছে আরিফ আহমেদ এর একক চিত্র প্রদর্শনী ‘সায়েন্স ইন্সপায়ার্ড পেইন্টিং এক্সিবিশন।’ শিল্পী তাঁর তুলিতে মহাবিশ্বের রহস্যময়তা ফুটিয়ে তুলেছেন নিখুঁতভাবে। প্রদর্শনীর আয়োজন উন্মাদ পত্রিকা। মহাকাশ নিয়ে তেল রঙ, অ্যাক্রেলিক ও মিক্সড মিডিয়ায় আঁকা ৫৫টি ছবি স্থান পেয়েছে প্রদর্শনীতে। এ ধরনের প্রদর্শনী বাংলাদেশে এটাই প্রথম।

সায়েন্স ইন্সপায়ার্ড পেইন্টিং এক্সিবিশন

আজ ১৭ জানুয়ারি বিকাল ৩ টায় উদ্বোধন করা হয় পাঁচ দিনব্যাপী এ প্রদর্শনীর। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিল্পী মাসুক হেলাল, কার্টুনিস্ট আহসান হাবীব, বিজ্ঞান বক্তা আসিফ, ন্যাশনাল অ্যাস্টনমি অলিম্পিয়াডের সিনিয়র অ্যাডভাইসর রোনাল্ড ক্রুজ, কার্টুনিস্ট নজরুল ইসলাম, উন্মাদ পত্রিকার নির্বাহী পরিচালক সাগর খন্দকার ও শিল্পী আরিফ আহমেদ।

সায়েন্স ইন্সপায়ার্ড পেইন্টিং এক্সিবিশন

আহসান হাবীব বলেন, ‘উন্মাদ সবসময় ভিন্নধর্মী কাজকে সাধুবাদ জানায়। এ ধরনের প্রদর্শনীর সঙ্গে সরাসরি যুক্ত থাকতে পেরে তাই খুব ভালো লাগছে। আমি মনে করি মহাকাশের দিকে তাকালে মনের ক্ষুদ্রতা দূর হয়।’

মাসুক হেলাল বলেন, ‘এত দূরের একটা জিনিস কীভাবে রঙিন করে আঁকা যায় সেটা আমার কখনোই বোধগম্য হয়নি। আরিফকে ধন্যবাদ এ ধরনের প্রয়াসের জন্য।’  

রোনাল্ড ক্রুজ বলেন, ‘আমাদের সময় অনেকেই বিজ্ঞানকে ভালোবেসে সায়েন্স বা ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তো। কিন্তু এখন দেখি বেশিরভাগ ছেলেমেয়েই বিবিএ পড়ছে! এরকম একটা অবস্থায় এ ধরনের প্রদর্শনী বর্তমান প্রজন্মকে উৎসাহ যোগাবে।’ 

সায়েন্স ইন্সপায়ার্ড পেইন্টিং এক্সিবিশন

শিল্পী আরিফ আহমেদ বলেন, ‘আমি সবসময় দ্বিধাগ্রস্ত ছিলাম যে কোনটা আসলে আমার বেছে নেওয়া উচিত- আর্ট না সায়েন্স? আমি দুটোকেই ভালবাসতাম। এ দ্বিধার পরিণতি এখন আপনাদের সামনে!’ তিনি শিল্পী আহসান হাবীবকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান এ প্রয়াসের উৎসাহ দেওয়ার জন্য।

প্রদর্শনী চলবে ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত।

সায়েন্স ইন্সপায়ার্ড পেইন্টিং এক্সিবিশন

শিল্পী পরিচিতি

আরিফ আহমেদ দেশের একজন সুপরিচিত অ্যানিমেটর। ব্যক্তিগত জীবনে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এসোসিয়েট প্রফেসর হিসেবে কর্মরত আছেন তিনি। পড়াশোনা করেছেন পদার্থ বিজ্ঞান নিয়ে। তিনি মনে করেন, মানুষ যদি  মহাজাগতিক বিশালতা নিজের মধ্যে ধারণ করতে পারে, তবে দূর হবে মনের সকল ক্ষুদ্রতা। 

ছবি: সাজ্জাদ হোসেন 
/এনএ/     

লাইভ

টপ