Vision  ad on bangla Tribune

গায়েহলুদে নয়, হলুদ চাই প্রতিদিন

লাইফস্টাইল ডেস্ক১৬:৩৫, মার্চ ১৯, ২০১৬

কাঁচা হলুদ

হলুদ বাটো, মেন্দি বাটো গানটা শুনলেই বুঝে যাই আজ কারও গায়েহলুদ। সেদিন কাঁচা হলুদ বাটা হবে। কিন্তু যদি প্রতিদিনই আপনার বাসায় একটু কাঁচা হলুদ বাটা হয় তাতে কিন্তু ক্ষতি নেই। ত্বকের যত্নে কাঁচা হলুদের বিকল্প নেই। একটু কষ্ট করলেই আপনার ত্বক ঝকঝকে…

দুদিন পর পর বেসন, কাঁচা হলুদ বাটা, টক দই মিশিয়ে মুখ সহ সারা শরীরে লাগিয়ে রাখুন শুকানো না পর্যন্ত। শুকিয়ে গেলে ঘড়ির কাটার উলটো দিকে স্ক্রাব করে মাসাজ করুন। এটি ত্বকের ময়লা পরিষ্কার করার সঙ্গে সঙ্গে ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখে ।

ত্বকের মোটা হয়ে যাওয়ার ফাটা দাগ, প্রেগ্নেন্সির স্ট্রেচ মার্ক দূর করতে বেসন, কাঁচা হলুদ মিশিয়ে ঐ নিদিষ্টও জায়গায় লাগালে ধীরে ধীরে দাগ কমতে শুরু করে।

কাঁচা হলুদ একটি এন্টিসেপ্টিক। তাই কাঁটা এবং পোড়া জায়গায় হলুদ বাটার সাথে এলোভেরা মিশিয়ে দিলে অনেক উপকার পাওয়া যায় । তাড়াতাড়ি ব্যথা এবং দাগের উপশম ঘটে।

সারাদিন বাইরে থাকে যারা, তাদের ত্বকের পোড়া ভাব এবং পিগ্মেন্টেশন কমাতে হলুদ বাটা, শশার রস, মুলতানি মাটি, লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে মুখে মাস্ক হিসাবে লাগিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট। ত্বকের পোড়া ভাব কমে যাবে।

প্রতিদিন ময়দা এবং কাঁচা হলুদ বাটা মিশিয়ে স্ক্রাব করলে, ত্বকের অবাঞ্ছিত লোম ধীরে ধীরে কমে আসবে।

যেকোনও চর্ম রোগের জন্য হলুদ অনেক উপকারী। কাঁচা হলুদের সাথে কাঁচা দুধ মিশিয়ে শরীরে মাখলে একজিমা, অ্যালার্জি, র‌্যাশ, চুলকানি ইত্যাদি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

/এফএএন/

লাইভ

টপ