ম্যান বুকারের তালিকায় গ্রাফিক উপন্যাস

Send
আবীর আদনান
প্রকাশিত : ১৭:৪৯, জুলাই ২৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৫৩, জুলাই ২৪, ২০১৮


ম্যান বুকার পুরস্কারের ইতিহাসে এবার গ্রাফিক উপন্যাস দীর্ঘ তালিকায় জায়গা করে নেয়ায়  বিশ্বব্যাপী আলোচনায় এসেছেন মার্কিন লেখক নিক ডেনসো।

নিক ডেনসো তার গ্রাফিক উপন্যাস ‘সাবরিনা’ দিয়ে জুরিদের নজর কেড়েছেন। যদিও প্রথমে উপন্যাসটি ‘কমিক’ ক্যাটাগরির মধ্যে থাকায় খারিজ করে দেওয়া হয়েছিলো।

একটি মেয়ে উধাও হয়ে যাওয়ার ২৪ ঘণ্টা পর কেমন ধরনের ভায়োলেন্স ও ভুয়া খবর চারিদিকে ছড়িয়ে পড়েছিলো সেটা খুব সহজ ইলাস্ট্রেশনের মাধ্যমে এই উপন্যাসে উপস্থাপন করেছেন লেখক।

জুরিবোর্ড উপন্যাসটিকে ভিন্নধর্মী, সূক্ষ্ম এবং প্রকৃত উপন্যাসের ধারায় নতুন একটি রূপের সূচনাকারী হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন। যে কারণে কমিক উপন্যাস হয়েও ‘সাবরিনা’ জায়গা করে নিয়েছে ম্যান বুকার পুরস্কারের দীর্ঘ তালিকায়।

বিচারকদের কথায় তাল মিলিয়ে বেস্ট সেলিং ক্রাইম ঔপন্যাসিক ভ্যালম্যাক ডার্মিড বলেছেন, ‘আমরা সবাই উপন্যাসটি পড়েছি এবং সবাই দারুণভাবে উপভোগ করেছি। এই গ্রাফিক উপন্যাসে গল্প বলার শৈলী ধীরে ধীরে পাঠককে অজান্তেই কাহিনীর ভেতর নিয়ে যায় এবং উপন্যাসের পুরো কাহিনীটির দারুণ একটি শুরু এবং কেন্দ্র রয়েছে। আমাদের কাছে মনে হয়েছে ‘সাবরিনা’ তেমন একটি উপন্যাস, যাকে বলে যথাযথ উপন্যাস।

নিক ডেনসোউল্লেখ্য, গ্রাফিক উপন্যাস এক প্রকার গদ্যসাহিত্য, যেখানে গল্প কমিকের মতো করে পাঠকের কাছে পরিবেশন করা হয়। গল্পের বিভিন্ন চরিত্র কার্টুন আকারে অঙ্কিত থাকে এবং চরিত্রদের দিয়েই কাহিনী বয়ান করা হয়। এর পরিধি অনেক বড় হলেও কাঠামোর দিক থেকে ছোটগল্পের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ এবং বিভিন্ন বিভাগে বিভক্ত।
ম্যান বুকার পুরস্কার ২০১৮’র দীর্ঘ তালিকায় স্থান পাওয়া ১৩ জন লেখকের মধ্যে ছয়জন ব্রিটিশ, তিনজন মার্কিন, দুইজন আইরিশ এবং দুইজন কানাডিয়ান।
‘সাবরিনা’ ছাড়াও দীর্ঘ তালিকায় স্থান পাওয়া বাকি উপন্যাসগুলোও রয়েছে আলোচনায়। যেমন- ব্রিটিশ লেখক বেলিন্দা বুরের ক্রাইম থ্রিলার ‘স্নাপ’-এ মাতৃহারা তিনজন বাচ্চার জীবনের বিভিন্ন সংগ্রামের কাহিনীকে বিচারকরা বলেছেন, “‘স্নাপ’ একটি প্রচণ্ড রকমের কড়া উপন্যাস যা বারবার স্মরণ করায় আমরা কিভাবে বেঁচে আছি।”
৬৩ বছর বয়সী ব্রিটিশ কবি রবিন রবার্টসনের প্রথম উপন্যাস ‘দ্য লং টেক’-এ পদ্য এবং গদ্য মিশিয়ে লেখার কারণে বেশ নজর কেড়েছেন পাঠকদের। ২৭ বছর বয়সী তরুণী আইরিশ লেখক স্যালি রুনির উপন্যাস ‘নরমাল পিপল’ এবং আরেক তরুণী ব্রিটিশ লেখক ডেইজি জনসনের উপন্যাস ‘এভ্রিথিং আন্ডার’ সবচেয়ে তরুণ হিসেবে জায়গা করে নেওয়ায় আসন্ন বুকার পুরস্কার ঘোষণা অন্যরকম আমেজ ছড়াবে বিশ্বব্যাপী লেখক-পাঠকের মাধ্যে।

চলুন ম্যান বুকার পুরস্কার ২০১৮-এর দীর্ঘ তালিকায় একবার চোখ বুলিয়ে আসা যাক-

বেলিন্ডা বাওয়ার (ব্রিটেন), উপন্যাস- স্নাপ (বান্টাম প্রেস থেকে প্রকাশিত)

আন্না বার্নস (ব্রিটেন), উপন্যাস- মিল্কম্যান (ফেবার অ্যান্ড ফেবার থেকে প্রকাশিত)

নিক ডেনসো (যুক্তরাষ্ট্র), কমিক উপন্যাস- সাবরিনা (গ্রান্টা বুকস থেকে প্রকাশিত)

ইসি এডুগিয়ান (কানাডা), উপন্যাস- ওয়াশিংটন ব্লাক (সারপেন্স টেইল থেকে প্রকাশিত)

গাই গোনারত্না (ব্রিটেন), উপন্যাস- ইন আওয়ার ম্যাড অ্যান্ড ফিউরিয়াস সিটি (টিন্ডার প্রেস থেকে প্রকাশিত)

ডেইজি জনসন (ব্রিটেন), উপন্যাস- এভ্রিথিং আন্ডার (জোনাথন কেপ থেকে প্রকাশিত)

রাচেল কুশনার (যুক্তরাষ্ট্র), উপন্যাস- দ্য মার্স রুম (জোনাথন কেপ থেকে প্রকাশিত)

সোফি ম্যাকিনটোশ (ব্রিটেন), উপন্যাস- দ্য ওয়াটার কিওর (হামিশ হ্যামিলটন থেকে প্রকাশিত)

মাইকেল ওন্ডাটাজে (কানাডা), উপন্যাস- ওয়ারলাইট (জোনাথন কেপ থেকে প্রকাশিত)

রিচার্ড পাওয়ারস (যুক্তরাষ্ট্র), উপন্যাস- দ্য অভার স্টোরি (উইলিয়ান হেইনিম্যান থেকে প্রকাশিত)

রবিন রবার্টসন (ব্রিটেন)- দ্য লং টেক (পিকাদর থেকে প্রকাশিত)

স্যালি রুনি (আয়ারল্যান্ড)– নরমাল পিপল (ফেবার অ্যান্ড ফেবার থেকে প্রকাশিত)

এবং ডোনাল রায়ান (আয়ারল্যান্ড)– ফ্রম এ লো অ্যান্ড কোয়াইট সি (ডাবলডে আয়ারল্যান্ড থেকে প্রকাশিত)


আগামী ২০ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত হবে সংক্ষিপ্ত তালিকা এবং সেই তালিকা থেকে ১৬ অক্টোবর ঘোষণা করা হবে এ বছরের ম্যান বুকার বিজয়ীর নাম। সূত্র : ইন্ডিপেন্ডেন্ট

//জেডএস//

লাইভ

টপ