মেঘ অদিতির কবিতা

Send
.
প্রকাশিত : ১৩:৩৯, মার্চ ২৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৪২, মার্চ ২৭, ২০১৯

সমগ্র বাংলাদেশ

সমস্ত সকালের ভেতর ছড়িয়ে পড়ছে পুষ্পবৃষ্টি

এবার অভিষেক কুড়িয়ে তুলবে জ্যোৎস্নাকুমার

 

দু’জন ভার্যা, সাত’শ গাভী, ব্রাহ্মণকে দানের পূর্বে

কুমার জেনে নিচ্ছে কী ছিল তার দায়...

কুমারকে মনে পড়তে

জেব্রাক্রসিং ধরে সহসা দৌড়াই

আমাদের ওপর দিয়ে চলে যায়—

সমগ্র বাংলাদেশ

 

মৈত্রীগুণ

তোমার হাতের পাতায় পরছিদ্রান্বেষী রেখা

খুলে যাচ্ছে প্রাচীন দরজা

আমি কি সুপর্ণ জাতক?

অমন পালিয়ে গেলে

মনে হয় অক্ষরেখায় ফুটেছে কামুকঘাতক

 

বরং ঘুমাও—

চাঁদ হেসে গলে যাক মেঘের আড়ালে

পর্ণকুটিরে জাগুক নদীমুখ

স্নান সমাপন শেষে

বোধিসত্ত্ব শিখিয়ে দিলে মৈত্রীগুণ

ফুটবে সারারাত অজস্র তারার সাথে..

 

আর্কাইভ

প্রেম খোয়া গেলে পর্যটনকেন্দ্রগুলো ধোঁয়াশা

পূর্বাপর চিঠিগুলো জমে যায় আর্কাইভে

 

এই যে তোমাকে লিখছি

পাতার পর পাতা

টেড হিউসের কথায়

তুমি কি ভেঙে ফেলছো আয়নাপারা

 

ছবির ভেতর মনোচিকিৎসা

আত্মহত্যাজনিত অবসাদে

জেগে উঠছে নিয়তিবন্দর

 

হতে পারতে তুমিও রুত—

মনের আরেক মন, অন্যমন

 

টুইট

রোজ রাতে ঘুমোবো না ভেবেও

ঘুমিয়ে পড়ছে স্বজন হারানো মানুষ

প্রিয় ছবির গা থেকে খুলে যাচ্ছে আগল

অন্ধতার নাম যা কিছু হতে পারে

কিন্তু একজন শ্বেতাঙ্গ

সাধারণ পুরুষের নাম ব্রেন্টন ট্যারান্ট

 

কতটা ‘নেই’ হয়ে থাকার যাপনে

নীলচোখ, শিশু ব্রেন্টন, শ্বেতাঙ্গ সাধারণ পুরুষ

এবং ঘাতকের জন্ম হয়...

ব্রেন্টন সন্ত্রাসী নয়, কেন? ছবি দেখতে দেখতে

এইমাত্র টুইট করলেন রিকি মার্টিন

//জেডএস//

লাইভ

টপ