behind the news
Rehab ad on bangla tribune
Vision Refrigerator ad on bangla Tribune

ইউল্যাবে মোবাইল ফোনে ধারণকৃত চলচ্চিত্রের প্রদর্শনী

ইউল্যাব প্রতিনিধি১৯:০৩, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৬

দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজিত ‘ইউল্যাব সিনেমাস্কোপ আন্তঃ বিশ্ববিদ্যালয় মোবাইল ফিল্ম প্রতিযোগিতায়’ নির্বাচিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রগুলো আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি ইউল্যাব ক্যাম্পাস বি’তে বিকাল ৪টা থেকে প্রদর্শিত হবে। এবারের প্রতিযোগিতায় মোবাইল ফোনে ধারণকৃত মোট চারটি চলচ্চিত্র নির্বাচকদের প্রশংসা কুড়িয়েছে। নির্বাচিত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে আছে আদিল খানের পরিচালনায় ‘ঘুরপথ’, প্রিয়াঙ্কা চৌধুরীর ‘ইতি একাত্তর’, ফারহান তানভীর রাফিতের ‘দোষ’ এবং মির ওয়াদুদ ইসলামের ‘ড্রপ টু ডার্ক’।
দৈনন্দিন জীবনের উপর ভার্চুয়াল আগ্রাসন নিয়ে সিনেমা ‘ড্রপ টু ডার্ক’ তৈরি করেছেন ইউল্যাব মিডিয়া স্টাডিজ অ্যান্ড জার্নালিজম বিভাগের ছাত্র মির ওয়াদুদ ইসলাম। নিজের চলচ্চিত্র সম্পর্কে মির বলেন, ‘ড্রপ টু ডার্ক আমার প্রথম কাজ। এ কাজটি যে ফাইনালের জন্য নির্বাচিত হবে তা ভাবতেই পারিনি। জয়ের চেয়ে হারই বেশি আশা করছি। হারের মধ্য দিয়ে জয়টাকে অনুসন্ধান করতে চাই। আমার মতে ফিল্মের জগতে মোবাইল ফোন বিপ্লব ঘটাতে পারে। একটা সময় ফিল্ম বানানোর জন্য দরকার ছিল কাড়িকাড়ি টাকা। এখন একটা স্মার্টফোন হাতে থাকলেই বানানো যেতে পারে অসাধারণ চলচ্চিত্র। তবে মোবাইল ফোনে শ্যুটিং করতে গিয়ে একটু সমস্যা হয়। কারণ এর সীমাবদ্ধতা রয়েছে। কিন্তু উপস্থিত বুদ্ধি ও বিভিন্ন সফটওয়্যার ব্যবহারের মাধ্যমে সমস্যাগুলো কাটিয়ে ওঠা সম্ভব।’
বয়সন্ধিকালীন সমস্যাকে চলচ্চিত্রের পর্দায় তুলে ধরেছেন নির্মাতা ফারহান তানভীর রাফিত। রাফিত বলেন, ‘বয়সন্ধিকালীন সমস্যার মতো স্পর্শকাতর বিষয়কে চলচ্চিত্রে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। প্রদর্শনীর জন্য তা নির্বাচিত হয়েছে জেনে বেশ ভালো লাগছে। মোবাইল ফোন সিনেমা তৈরির জন্য বেশ সম্ভাবনাময় মাধ্যম হলেও এখনও যেহেতু এটা ডিএসএলআর এর সমকক্ষ হতে পারেনি তাই লাইটসহ বেশ কিছু বিষয়ে সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। মোবাইল ফোনের অন্যতম ভালো দিক  হলো এটা খুব সহজে ব্যবহার করা যায়। আশা করি স্মার্টফোন বিবর্তিত হতে হতে এসব সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবে।’

ইউল্যাব সিনেমাস্কোপের প্রধান নির্বাহী মহিম আহমেদ নাইম বলেন, ‘নতুন টুল হিসেবে সিনেমায় মোবাইল ডিভাইসের ব্যবহারকে প্রাধান্য দিয়েই মোবাইল ফিল্ম প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছি আমরা। এর আগেও একবার আন্তঃ বিশ্ববিদ্যালয় মোবাইল ফিল্ম নির্মাণ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিলাম । আশা করি এ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে চলচ্চিত্র শিক্ষানবিশরা চলচ্চিত্র নির্মাণে আগ্রহী হবে। আমরাও নতুন দিনের চলচ্চিত্র নির্মাতাদের খুঁজে পাব।’

সিনেমাস্কোপের উপদেষ্টা এবং ইউল্যাব মিডিয়া স্টাডিজ অ্যান্ড জার্নালিজম বিভাগে জ্যেষ্ঠ প্রভাষক মুহাম্মাদ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘নতুন দিনের চলচ্চিত্র নির্মাতাদের চলচ্চিত্র ভাষা কী হবে তার অনেকটাই নির্ভর করবে সর্বশেষ নির্মাণ প্রযুক্তিকে তারা কিভাবে কতটা ব্যবহার করতে পারছে তার ওপর। আমি বিশ্বাস করি মোবাইল প্রযুক্তি স্বাধীন ধারার নির্মাণকে নতুন এক জায়গায় নিয়ে যাবে।

/এসএস/এসএম/ এইচকে/

Ifad ad on bangla tribune

লাইভ

টপ