পাহাড় ধসে নিহতের সংখ্যা ১৬৬ জন: ত্রাণমন্ত্রী

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৩:৫৯, জুন ২০, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৫৯, জুন ২০, ২০১৭

মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া (ছবি: সংগৃহীত)তিন পার্বত্য জেলায় পাহাড় ধসের ঘটনায় মোট ১৬৬ জন সামরিক ও বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। মঙ্গালবার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ তথ্য জানান।

এ সময় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহকামাল এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা উপস্থিত ছিলেন।

মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, ‘পাহাড় ধসের পর সেখানে রাস্তাঘাট চালু হচ্ছে, বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হচ্ছে। আমাদের খাদ্যের কোনও অভাব নেই। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ঘর তৈরি করে দেবো। জেলা প্রশাসকের চাহিদা অনুযায়ী এসব করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সামনে ঈদ, বৃষ্টিও হচ্ছে। এ অবস্থায় আবারও পাহাড় ধস হলে অবহায় মানুষরা আরও দুর্ভোগে পড়বে। এ জন্য ১৫ জুলাই পর্যন্ত আশ্রয় কেন্দ্রগুলো চালু থাকবে। যারা আশ্রয় নিয়েছেন তারা সেখানেই থাকবেন। এখানে তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও খাবার সরবরাহ করা হবে। এ যাবৎ ওই এলাকায় এক হাজার টন চাল, ৮৪ লাখ টাকা, ৫শ’ বান্ডিল টিন দেওয়া হয়েছে।’

ত্রাণমন্ত্রী বলেন, ‘পাহাড় ধসের ঘটনা এড়াতে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। পাহাড় কাটা, বালি উত্তোলন ও হাউজিং কর্মকাণ্ড বন্ধ করা হবে। ভূমি ধসের জরিপ ও ম্যাপ তৈরি করা হবে।’

পার্বত্য জেলাগুলোকে দুর্যোগপূর্ণ এলাকা ঘোষণা করতে বিএনপির দাবিকে এ সময় তিনি ফাঁকা বুলি উল্লেখ করে বলেন, ‘এমন ফাঁকা বুলি আওড়িয়ে কোনও লাভ নেই। ত্রুটি থাকলে ধরিয়ে দেন। আমরা সংশোধন হবো। ক্ষয়ক্ষতি নিরুপনে সময় লাগবে। কারণ যোগাযোগ ব্যবস্থা এখনও শতভাগ ঠিক হয়নি।’

/এসআই/এসএনএইচ/

লাইভ

টপ