কোটা সংস্কার আন্দোলনের তিন নেতাকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৪:১৩, এপ্রিল ১৬, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৩২, এপ্রিল ১৬, ২০১৮

বসা অবস্থায় ঘড়ির কাটার দিকে বাম থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রাশেদ, নুর (তৃতীয়) ও ফারুক (পঞ্চম)

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সংবাদ সম্মেলন শেষ করে চানখাঁরপুলের দিকে যাওয়ার সময় কোটা সংস্কার আন্দোলনের তিন নেতাকে পুলিশের গোয়েন্দা শাখার সদস্যরা তুলে নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার (১৬ এপ্রিল) বেলা পৌনে ২টার দিকে এ অভিযোগ করেছেন সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক হাসান আল মামুন।

ওই তিন নেতা হলেন- ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুর, যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক আহমদ ও যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খান।

তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন,‘টিএসসি থেকে চানখাঁরপুলের দিকে যাওয়ার সময়,রাশেদ,ফারুক ও নূরকে সাদাপোশাকধারী ব্যক্তিরা মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে গেছে। আমি চিনি, তারা ডিবি।’

যারা তুলে নিয়ে গেছেন, তাদের কীভাবে চিনলেন—এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এর আগেও তাদের দেখেছি। তারাই নিয়ে গেছে।’

হাসান আল মামুন বলেন,‘আমরা সবাই ব্রিফ শেষ একসঙ্গেই চলে আসছিলাম। আমরা আগেই খেয়াল করছিলাম, সাদা পোশাকের লোকজন আমাদের ফলো করছে। আমি ওদের বলছিলাম, যাতে ওরা একা কোথাও না যায়।’

উল্লেখ্য, সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী অজ্ঞাতনামা শিক্ষার্থীদের নামে শাহবাগ থানায় দায়ের করা মামলা দুই দিনের মধ্যে তুলে না নিলে আবারও আন্দোলনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (১৬ এপ্রিল) বেলা পৌনে ১২টার দিকে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন থেকে বলা হয়, ‘যদি আগামী দুই দিনের মধ্যে সেই মামলাগুলো প্রত্যাহার করা না হয়, তাহলে প্রয়োজনে আমরা আবার আন্দোলনে যাবো।’ সংবাদ সম্মেলন শেষে চানখাঁরপুলের দিকে যাওয়ার সময় এ সংগঠনের তিন যুগ্ম আহ্বায়কে তুলে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ সংক্রান্ত সংবাদ: কোটা সংস্কার: ২ দিনের মধ্যে মামলা তুলে না নিলে ফের আন্দোলন 

 

 

/আরএআর/এআরআর/এএইচ/টিএন/

লাইভ

টপ