বাজেটে গুরুত্ব পাওয়া ১০ খাতের শীর্ষে পরিবহন ব্যবস্থা

Send
শফিকুল ইসলাম
প্রকাশিত : ২৩:৩৩, জুন ০৬, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:০১, জুন ০৭, ২০১৮





বাজেট ২০১৮-১৯২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে ১০টি খাতকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে শীর্ষে রয়েছে পরিবহন খাত। এ বছরের শেষ দিকে অনুষ্ঠিত হবে একাদশ জাতীয় সংসদের নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখেই পরিবহন খাতকে গুরুত্ব দিয়ে বাজেট তৈরি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এ খাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৪৫ হাজার ৪৪৯ কোটি ৮৭ লাখ টাকা, যা মোট এডিপির ২৬ দশমিক ২৭ শতাংশ। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, গত ১০ মে অনুষ্ঠিত জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সভায় আগামী অর্থবছরের জন্য ১৭টি খাতের মধ্যে সর্বোচ্চ বরাদ্দ পাওয়া ১০টি খাতের প্রথমটি হচ্ছে পরিবহন খাত। এ খাতে বরাদ্দ ৪৫ হাজার ৪৪৯ কোটি ৮৭ লাখ টাকা, যা মোট এডিপির ২৬ দশমিক ২৭ শতাংশ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চচ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বিদ্যুৎ খাতে। এর পরিমাণ ২২ হাজার ৯৩০ কোটি ২০ লাখ টাকা, যা মোট এডিপির ১৩ দশমিক ২৫ শতাংশ। তৃতীয় সর্বোচ্চ বরাদ্দ ভৌত-পরিকল্পনা-পানি সরবরাহ ও গৃহায়ণ খাত। এ খাতে বরাদ্দ পাওয়া গেছে ১৭ হাজার ৮৮৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা, যা মোট এডিপির ১০ দশমিক ৩৪ শতাংশ।

এছাড়া, গ্রামীণ অর্থনীতিতে গতিশীলতা আনতে এবং অধিক কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে চতুর্থ সর্বোচ্চ বরাদ্দ রয়েছে পল্লি উন্নয়ন ও পল্লি প্রতিষ্ঠান খাতে ১৬ হাজার ৬৯০ কোটি ৩০ লাখ টাকা, যা ৯ দশমিক ৬৫ শতাংশ। শিক্ষার প্রসার ও গুণগতমান বৃদ্ধির লক্ষ্যে শিক্ষা ও ধর্ম খাতে পঞ্চম সর্বোচ্চ বরাদ্দ ১৬ হাজার ৬২০ কোটি ৩৩ লাখ  টাকা, যা মোট এডিবির ৯ দশমিক ৬১ শতাংশ। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণসহ তথ্য প্রযুক্তির প্রসারে বিজ্ঞান,তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে বরাদ্দ ১৪ হাজার ২১০ কোটি ৭৩ লাখ টাকা,যা এডিবির ৮ দশমিক ২১ শতাংশ। স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে স্বাস্থ্য-পুষ্টি-জনসংখ্যা ও পরিবার কল্যাণ খাতে বরাদ্দ ১১ হাজার ৯০৫ কোটি টাকা, যা এডিপির ৬ দশমিক ৬৮ শতাংশ। খাদ্যে স্বয়ম্ভরতা অর্জনের লক্ষ্যে কৃষি খাতে বরাদ্দ ৭ হাজার ৭৬ কোটি ২২ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে, যা ৪ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ। নদী ভাঙন রোধ ও নদী ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে পানিসম্পদ সেক্টরে বরাদ্দ ৪ হাজার ৫৯২ কোটি ৭৮ লাখ টাকা, যা এডিপির ২ দশমিক ৬৫ শতাংশ। মানবসম্পদ উন্নয়নসহ দক্ষতা বৃদ্ধিতে গতিশীলতা আনতে জনপ্রশাসন খাতে বরাদ্দ ৩ হাজার ৩৬১ কোটি টাকা, যা মোট এডিপির ১ দশমিক ৯৪ শতাংশ।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, জনগণের কল্যাণের কথা বিবেচনা করেই খাতভিত্তিক তালিকা করেছে সরকার। নির্বচনের বছর বলে জনপ্রতিনিধিরা রাস্তাঘাট ও অবকাঠামো নির্মাণের দিকে গুরুত্ব দিচ্ছে। তাই এ বছর পরিবহন খাতকে গুরুত্ব দিয়ে বাজেট তৈরি করা হয়েছে।

 

/এসআই/এপিএইচ/

লাইভ

টপ