কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে এফটিএ স্বাক্ষরের প্রস্তাব বাণিজ্যমন্ত্রীর

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০৭:৪৮, আগস্ট ১০, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৫৯, আগস্ট ১০, ২০১৮

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদকমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে এফটিএ স্বাক্ষর করা হলে পারস্পরিক বাণিজ্য বৃদ্ধি পাবে বলে মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, কমনওয়েলথভুক্ত ৫৩ দেশের জনসংখ্যা প্রায় ২৪০ কোটি। কমনওয়েলথ দেশগুলোর মধ্যে ২০১৬ সালে বাণিজ্য হয়েছে প্রায় ৬০০ বিলিয়ন ডলার। ২০২০ সালে এ বাণিজ্যের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৭০০ বিলিয়ন ডলার। এফটিএ স্বাক্ষর করা হলে বাণিজ্য আরও বাড়বে।

বুধবার (৯ আগস্ট) বাংলাদেশ সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে তার কার্যালয়ে বাংলাদেশ সফররত কমনওয়েলথ মহাসচিব প্যাট্রেসিয়া স্কটলান’র সাথে মতবিনিময় কালে তিনি এসব কথা বলেন।

তোফায়েল আহমেদ কমনওয়েলথ মহাসচিবকে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সব দিকে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এলডিসি থেকে ইতোমধ্যে উন্নয়নশীল দেশে প্রবেশ করেছে। বাংলাদেশের অর্থনীতি বিগত যেকোনও সময়ের চেয়ে ভালো। একসময় যারা বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি এবং বিশ্বের দরিদ্র দেশের মডেল হিসেবে উল্লেখ করেছিল, আজ তারাই বলছে, বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। বাংলাদেশ যথাসমেয় সফলভাবে এমডিজি অর্জন করে জাতিসংঘে পুরস্কৃত হয়েছে, এসডিজিও সফলভাবে অর্জন করবে। এজন্য বাংলাদেশ সরকার আন্তরিকবতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ এশিয়ার মধ্যে প্রথম। বাংলাদেশেল উন্নয়ন বিশ্ববাসীর দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছে।’

কমনওয়েলথ  মহাসচিব বলেন, ‘বাংলাদেশে উন্নয়নকে কমনওয়েলথ  স্বাগত জানায়। এজন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমরা চাই বাংলাদেশ আরও উন্নতি করুক। কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধির জন্য বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বিশ্ববাণিজ্য সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য কমনওয়েলথ কাজ করে যাচ্ছ। বাংলাদেশে বিপুল সংখ্যক কর্মক্ষম যুবশক্তি রয়েছে, এ যুব শক্তিকে যথাযথভাবে কাজে লাগাতে হবে। এজন্য কমনওয়েলথ কাজ করে যাচ্ছে।’

 

 

/এসআই/এসটি/

লাইভ

টপ