অগ্নিসংযোগ-নাশকতা প্রতিরোধে লাইফ সেভিং ফোর্সের ৬ হাজার সদস্য মোতায়েন

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:২৭, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৩২, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৮

লাইফ সেভিং ফোর্সের সদস্যরাসারাদেশে দি লাইফ সেভিং ফোর্সের প্রায় ৬ হাজার সদস্যকে নিয়োজিত করা হয়েছে। তারা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণের দিন অগ্নিসংযোগ, নাশকতাসহ যেকোনও ধরনের প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নেবেন। ফায়ার সার্ভিসের এই সদস্যরা বিভাগীয় পর্যায়ে বিভিন্ন টিমে মোতায়েন থেকে কাজ করবেন। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের পরিচালক (অপারেশন ও মেইনটেন্যান্স) মেজর এ কে এম শাকিল নেওয়াজ এই তথ্য জানান।

মেজর এ কে এম শাকিল নেওয়াজ বলেন, ‘দেশের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে সমন্বয় রেখে নির্বাচনি পরিবেশ স্বাভাবিক রাখার জন্য ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা সর্বদা প্রস্তুত রয়েছেন।’

শুক্রবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর উত্তরা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কার্যালয়ে এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

মেজর এ কে এম শাকিল নেওয়াজ জানান, নির্বাচনের দিন দেশজুড়ে প্রায় ৬ হাজার সদস্য দায়িত্ব পালনে নিয়োজিত থাকবেন। যে সমস্ত ভোটকেন্দ্র অধিক ঝুঁকিপূর্ণ ও সাধারণ কেন্দ্র অনুযায়ী ফায়ার সার্ভিসের রেসকিউ টিমের সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের পরিচালক (অপারেশন ও মেইনটেন্যান্স) মেজর এ কে এম শাকিল নেওয়াজ  বলেন, ‘দি লাইফ সেভিং ফোর্স  ইতোমধ্যে নির্বাচন কার্য সুষ্ঠুভাবে  পরিচালনার জন্য বিভাগীয় পর্যায়ে ফায়ার মনিটরিং ও সমন্বয় করা হয়েছে। প্রত্যেক সদস্যের এই বিষয়ে কি করণীয় এবং তার অবস্থান সম্পর্কে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

শাকিল নেওয়াজ বলেন, ‘‘ভোটের দিন সকাল ৭টায় দায়িত্ব শুরু করে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সবাই কর্তব্য ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন। ভোটকেন্দ্রের দূরত্ব বজায় রেখে যেকোনও আপদকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলায় সেনাবাহিনীসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় ঘটনাস্থলে ‘দি লাইফ সেভিং ফোর্স’র সদস্যরা কাজ করবেন।’’

মেজর এ কে এম শাকিল নেওয়াজ বলেন, ‘নির্বাচনের দিন ১ হাজার মোটরসাইকেলের মাধ্যমে টহল চলবে। পাশাপাশি ওয়াটার টেন্ডার, ফোর হুইলার, টু হুইলারসহ সর্বশক্তি মাঠে থাকবে। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যদের সব ধরনের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।’

সড়কপথে যদি সহিংসতার ঘটনা ঘটে তাহলে সেনাবাহিনীর স্ট্রাইকিং ফোর্স ও অন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে দায়িত্ব পালন করা হবে বলে জানান ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের পরিচালক (অপারেশন ও মেইনটেন্যান্স) মেজর এ কে এম শাকিল নেওয়াজ। সূত্র: বাসস।

 

/এআরআর/এনআই/

লাইভ

টপ