হজ-ওমরাহ পালনকারীকে শারীরিকভাবে সুস্থ থাকতে হবে

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৬:১৫, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:২১, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯

প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক (ছবি- ফোকাস বাংলা)

এবার যারা হজ এবং ওমরাহ পালন করতে যাবেন, তাদেরকে আর্থিকভাবে সামর্থ্যবান, শারীরিকভাবে সক্ষম এবং মানসিকভাবে সুস্থ থাকতে হবে।  এটি ঠিক করবে মেডিক্যাল বোর্ড।  সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রিসভার বৈঠকে ‘জাতীয় হজ এবং ওমরাহ নীতি ২০১৯’ - এর অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এই নীতিমালার অনুমোদন দেওয়া হয়।

সভা শেষে সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।  এসময় ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব আনিছুর রহমান ও মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব রইস উল আলম মন্ডল উপস্থিত ছিলেন।

মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন,  ‘হজ এবং ওমরাহ পালনে ২০১৮ সালে যা ছিল, তার বেশির ভাগ বহাল রেখেই কিছু সংশোধন আনা হয়েছে এই নীতিমালায়।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘আগে নিয়ম ছিল সাত রমজানের মধ্যে বাড়ি ভাড়ার কাজ শেষ করতে হবে। তবে এবারের নীতিমালায় রমজানের আগেই বাড়ি ভাড়ার কাজ শেষ করতে হবে।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘১৮ বছর বয়সের নিচে  কেউ হজ বা ওমরাহ পালন করতে যেতে চাইলে, তাকে জন্ম সনদপত্র উপস্থাপন করতে হবে।  এছাড়া, এবার ৪৪ জন যাত্রীর সঙ্গে একজন করে গাইড থাকবেন।  আগে ছিল ৪৫ জনের সঙ্গে একজন গাইড।  সৌদি আরবের পরিবহন বাসগুলোতে ৪৫ জনের বেশি জায়গা হয় না বিধায় এবার এটি করা হয়েছে।’  

তিনি বলেন, ‘বাড়ি ভাড়াসহ যাবতীয় টাকা অনলাইনে পেমেন্ট করতে হবে।  প্রত্যেক হজযাত্রী এবং ওমরাহ পালনকারী সৌদি আরবের যে বাড়িতে থাকবেন, তার পাসপোর্টের শেষের পাতায় সেই বাড়ির ঠিকানাসহ কাগজ লাগিয়ে দেওয়া হবে।’ এছাড়া, বিমান ভাড়া সরাসরি পে-অর্ডারের মাধ্যমে পেমেন্ট করতে হবে বলে জানান তিনি।  

 

 

/এসআই/এআর/ এপিএইচ/

লাইভ

টপ