তিন বছরে প্রকল্পের চার শতাংশ বাস্তবায়ন, পিডিকে তলব

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩৪, এপ্রিল ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৩৬, এপ্রিল ১৮, ২০১৯

জাতীয় সংসদ ভবন ২ (ছবি- সাজ্জাদ হোসেন)কোরিয়ান সরকারের আর্থিক সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) অধীনে ১ হাজার শয্যাবিশিষ্ট সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতাল স্থাপনে এক হাজার ৩৬৬ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে শুরু হওয়া ১৩ তলাবিশিষ্ট এ হাসপাতাল নির্মাণের প্রকল্প শেষ হওয়ার কথা চলতি বছরের ডিসেম্বরে। চার বছর মেয়াদি এই প্রকল্পের তিন বছরের মাথায় বাস্তবায়ন অগ্রগতি মাত্র ৪ শতাংশ। প্রকল্প বাস্তবায়ন অগ্রগতির এ চিত্র দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে অনুমতি হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি। একজন চিকিৎসককে কেন প্রকল্প পরিচালক করা হয়েছে সেটা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে কমিটি। এজন্য প্রকল্পের প্রকৃত অবস্থা জানাতে কমিটির পরবর্তী বৈঠকে প্রকল্প পরিচালককে (পিডি) উপস্থিত থাকতে বলেছে কমিটি।
বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত অনুমতি হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) অধীনে সুপার স্পেশলাইজড হসপিটাল স্থাপন প্রকল্প নিয়ে কমিটির সদস্যদের এসব বক্তব্য উঠে আসে। বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি মো. আবদুস শহীদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘চার বছর মেয়াদি প্রকল্পের মেয়াদ আছে আর মাত্র ছয় মাসের মতো। এই সময়ে মাত্র চার ভাগ বাস্তবায়ন সেটা মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। কমিটি মনে করে এই প্রকল্পের কাজে গাফিলতি রয়েছে।’
প্রকল্প পরিচালক সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘তিনি পেশায় একজন চিকিৎসক। তাদের কাজ চিকিৎসা দেওয়া। একজন চিকিৎসকের অবকাঠামো নির্মাণের অভিজ্ঞতা থাকার কথা নয়। এই ধরনের প্রকল্পের কাজ খুবই টেকনিক্যাল। এজন্য কমিটি মনে করে কোনও কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্নের জন্য এসব কাজের সঙ্গে আগে জড়িত ছিলেন এমন কাউকেই দায়িত্ব দেওয়া উচিত।’ তিনি জানান, এই প্রকল্পের বাস্তব অবস্থা কী তা প্রকল্প পরিচালককে পরবর্তী কমিটির বৈঠকে স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে জানাতে বলা হয়েছে।
এদিকে সংসদ সচিবালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতাল নির্মাণে প্রকল্প সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য আগামী দুই মাসের মধ্যে কমিটিতে পাঠাতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রকল্প পরিচালককে আগামী বৈঠকে উপস্থিত থাকার জন্য বলা হয়েছে। এছাড়া কমিটি যেকোনও প্রকল্প পরিচলক নিয়োগের আগে অভিজ্ঞ ব্যক্তিকে নিয়োগ দেওয়ার সুপারিশ করেছে। কমিটির সভাপতি মো. আবদুস শহীদের সভাপতিত্বে বৈঠকে আরও অংশ নেন কমিটি সদস্য ও সংসদের চিফ হুইপ নুর-ই-আলম চৌধুরী, এ বি তাজুল ইসলাম, শেখ ফজলে নূর তাপস, বজলুল হক হারুন, আহসান আদেলুর রহমান ও ওয়াসিকা আয়শা খান।

 

 

 

/ইএইচএস/ওআর/

লাইভ

টপ