পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পে দুর্নীতি নিয়ে সংসদীয় কমিটির অসন্তোষ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:০০, জুন ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১০, জুন ১৮, ২০১৯

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্প (ফাইল ছবি)

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পে দুর্নীতি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সেজন্য কমিটি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ারও সুপারিশ করেছে। মঙ্গলবার (১৮ জুন) জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সংসদীয় কমিটির সভায় এই সুপারিশ করা হয় বলে সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

কমিটির সভাপতি আ ফ ম রুহুল হকের সভাপতিত্বে এর সদস্য ইকবালুর রহিম, হাবিবে মিল্লাত, মোজাফ্ফর হোসেন, শিরীন আহমেদ, সেলিমা আহমাদ ও হাবিবা রহমান খান বৈঠকে অংশ নেন। বিশেষ আমন্ত্রণে বৈঠকে যোগ দেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান।

সূত্র জানায়, বৈঠকে রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্রে কেনাকাটায় দুর্নীতি নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। কমিটির সদস্য হাবিবে মিল্লাত প্রসঙ্গটি উত্থাপন করেন। একটি বালিশের দাম ৫ হাজার ৯৫৭ টাকা এবং তা উঠানোর খরচ ৭৬০ টাকা কীভাবে হয়, তিনি সেই প্রশ্নও রাখেন। কমিটির সভাপতি আ ফ ম রুহুল হক পরে এ বিষয়ে বিজ্ঞানমন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান ও মন্ত্রণালয়ের সচিবের কাছে ব্যাখ্যা চান।

জবাবে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের আবাসনের জন্য ২১টি ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। গণপূর্ত বিভাগ এসব ভবন নির্মাণের কাজ করছে। এক্ষেত্রে বিজ্ঞান মন্ত্রণালয় কেবল প্রয়োজনীয় বরাদ্দ দিচ্ছে।

এপর্যায়ে সংসদীয় কমিটি প্রশ্ন রাখে, গণপূর্ত নিজেদের ইচ্ছামতো খরচ করবে আর বিজ্ঞান মন্ত্রণালয় কিছু করবে না বা তদারক করবে না? জবাবে বিজ্ঞান মন্ত্রণালয় বলেছে, এটি তদারকি করতে হলে আলাদা প্রকৌশল বিভাগ প্রয়োজন হবে, সেটা নেই। এ ছাড়া, পূর্ত বিভাগ সরকারি প্রতিষ্ঠান, এখানে তাদের কাজ সেভাবে তদারকি করার সুযোগও নেই। এই কাজ তারা করছে, কোনও ধরনের অডিট আপত্তি এলে তার জবাবও পূর্ত বিভাগকে দিতে হবে।

সংসদীয় কমিটির প্রশ্নের মুখে বিজ্ঞান মন্ত্রণালয় জানায়, দুর্নীতি সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পর ঘটনা তদন্তে দু’টি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ ছাড়া, উচ্চ আদালতে একটি রিটও হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বৈঠকে কমিটি মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান পড়ায় আগ্রহী করে তুলতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আন্তমন্ত্রণালয় বৈঠকের ব্যবস্থা করার জন্য মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের সুপারিশ করে।

 

/ইএইচএস/এমএ/

লাইভ

টপ