বাংলাদেশ থেকে হালাল মাংস নিতে আগ্রহী আরব আমিরাত

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩৮, জুন ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৩৮, জুন ১৮, ২০১৯

গরুর মাংস (ফাইল ছবি)

বাংলাদেশ থেকে নিরাপদ ও হালাল প্রাণিজ খাদ্য, বিশেষ করে মাংস আমদানিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। দেশটির খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এ আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) সচিবালয়ে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরুর সঙ্গে অনুষ্ঠিত দ্বিপাক্ষিক এক বৈঠকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মরিয়াম বিনতে মোহাম্মদ সাঈদ হারেব আল মেহাইরি এ আগ্রহ প্রকাশ করেন।

এসময় মৎস্য মন্ত্রণালয়ের সচিব রইছউল আলম মণ্ডল, মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশনের চেয়ারম্যান দিলদার আহমদ, মৎস্য অধিদফতরের ডিজি আবু সাইদ মো. রাশেদুল হক, প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের ডিজি হীরেশ রঞ্জন ভৌমিক, মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের ডিজি ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ, প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের ডিজি নাথুরাম সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মৎস্য প্রতিমন্ত্রীর দফতরে অনুষ্ঠিত বৈঠকে বাংলাদেশের উৎপাদিত মৎস্য ও প্রাণিসম্পদের ব্যাপক উন্নয়ন এবং স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের কথা তুলে ধরে মৎস্য প্রতিমন্ত্রী সংযুক্ত আরব আমিরাতে মাছ ও মাংসসহ প্রাণিজ খাদ্য রফতানির পাশাপাশি তাদের টেকনিক্যাল সহায়তারও প্রস্তাব দেন। এসময় সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতিমন্ত্রীকে বাংলাদেশের সামুদ্রিক মৎস্যসম্পদ, গরু-মহিষ এবং ডেইরি শিল্পের ব্যাপারে অবহিত করা হয়। তিনি বাংলাদেশের উৎপাদিত মৎস্য ও প্রাণিজ খাদ্য নিরাপদ ও হালাল হবে কিনা তা জানতে চান। এতে বাংলাদেশের উৎপাদিত প্রাণিজ খাদ্য ১০০ ভাগ নিরাপদ ও হালাল বলে আমিরাতের প্রতিমন্ত্রীকে জানানো হয়।

এদেশের মাছ রফতানিতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেওয়া অনাপত্তি সনদের কথাও আরব আমিরাতের প্রতিমন্ত্রীকে জানানা হয়। উভয় মন্ত্রী দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার করার কথা উল্লেখ করে ভবিষ্যতে ফের দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বসার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতিনিধি দলে বাংলাদেশে নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত সাঈদ মোহম্মদ সাঈদ হামিদ আলমেহেরি ছাড়াও অন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

/এসআই/এমএ/

লাইভ

টপ