ভারত-মিয়ানমার থেকে দেশে মাদক আসে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৭:৩২, জুন ২৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৪৫, জুন ২৪, ২০১৯




স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালবাংলাদেশ মাদক উৎপাদনকারী দেশ না হয়েও ভৌগোলিক কারণে মাদক সমস্যায় পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, ‘পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত-মিয়ানমার থেকে দেশে অবৈধ মাদক প্রবেশ করে।’ সোমবার (২৪ জুন) জাতীয় সংসদে প্রশ্ন-উত্তরে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মুজিবুল হকের প্রশ্নের জবাবে তিনি এই তথ্য জানান।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্ন-উত্তর টেবিলে উত্থাপিত হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আলোচিত মাদক ইয়াবা আসছে মিয়ানমার থেকে। ভারত থেকে আমাদের দেশে আসে গাঁজা, ফেনসিডিল, হেরোইন ও ইনজেক্টিং ড্রাগ।’ তিনি জানান, ২০১৮ সালে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা এক লাখ ৬১ হাজার ৩২৩ জন মাদক কারবারির বিরুদ্ধে এক লাখ ১৯ হাজার ৮৭৮টি মামলা দায়ের করেছে। আর চলতি বছরের প্রথম ৫ মাসে ছয় হাজার ৬৭১ জন মাদক কারবারির বিরুদ্ধে ছয় হাজার ১৫৬টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম-১১ আসনের এমপি এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, বহুতল ভবনের আগুন নেভানোর কাজে ফায়ার সার্ভিসের জন্য জাপানের কারিগরি সহায়তায় বিশেষ হেলিকপ্টার সংগ্রহের জন্য প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া, রাশিয়ান হেলিকপ্টারস কোম্পানি থেকে Ka-32A11BC ফায়ার ফাইটিং হেলিকপ্টার কেনার বিষয়ে স্পেসিফিকেশন যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়াধীন।

জামালপুর-৫ আসনের মোজাফফর হোসেনের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, পুলিশের মঞ্জুরিকৃত মোট জনবল দুই লাখ ১২ হাজার ৭ জন। এর মধ্যে পুলিশ দুই লাখ ১ হাজার ৩৯৩ জন ও নন-পুলিশ ১০ হাজার ৬১৪ জন। প্রয়োজনের তুলনায় পুলিশের জনবল কম হওয়ায় বর্তমান সরকার তার প্রথম মেয়াদে ৩২ হাজার ৩১টি পদ তৈরি করেছে। দ্বিতীয় মেয়াদে অনুমোদিত ৫০ হাজার পদের মধ্যে ৪৮ হাজার ৩০০টি সৃজনসম্পন্ন করা হয়েছে। অবশিষ্ট পদ সৃজনের প্রস্তাব বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে বিবেচনাধীন আছে।

/ইএইচএস/এমএনএইচ/এমএমজে/

লাইভ

টপ