আইওএম নির্বাচনের মর্যাদা সমুন্নত রাখার আহ্বান

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২২:৫৩, জুন ২৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৫৫, জুন ২৪, ২০১৯





পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হকআন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) উপ-মহাপরিচালক পদের নির্বাচনের মর্যাদা সমুন্নত রাখতে সদস্যরাষ্ট্রগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ। সোমবার (২৪ জুন) ঢাকায় কূটনীতিকদের ব্রিফিং করার সময় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এ আহ্বান জানান।
গত শুক্রবার স্থগিত হওয়া এ নির্বাচনে পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘চতুর্থ রাউন্ড পর্যন্ত আমাদের প্রার্থী দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল। তখন কোনও প্রশ্ন ওঠেনি। কিন্তু যখনই পঞ্চম রাউন্ডে পররাষ্ট্র সচিব সংখ্যাগরিষ্ঠা পেলেন তখনই আইওএম-এর নিয়ম ভেঙে নির্বাচন নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি করা হলো।’
নির্বাচনের মর্যাদা সমুন্নত রাখতে এবং বুধবার (২৬ জুন) ভোটিং প্রক্রিয়া শুরু হলে বাংলাদেশের প্রার্থীকে সমর্থন দিতে বিদেশি কূটনীতিকদের আহ্বান জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।
গত শুক্রবার অত্যন্ত উত্তেজনাপূর্ণ নির্বাচন পঞ্চম রাউন্ড পর্যন্ত গড়ায়। শেষ রাউন্ডে শহীদুল ৭৫ ভোট পান। তার নিকটতম সুদানের প্রতিদ্বন্দ্বী পান ৭৩ ভোট। আইওএম-এর নিয়ম অনুযায়ী কোনও প্রার্থী সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে অন্য প্রার্থীরা ঝরে যান। সংখ্যাগরিষ্ঠ প্রার্থীকে হ্যাঁ-না ভোটের সুযোগ দেওয়া হয় দুই-তৃতীয়াংশ সমর্থন আদায়ে। এ পদ্ধতি নিয়ে আফ্রিকান ইউনিয়ন জটিলতা তৈরি করলে নির্বাচন মুলতবি করা হয়।
বাংলাদেশ ছাড়া আরও ৪ দেশ এই পদের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছিল। তারা হলো সুদান, ফিলিপাইন, আফগানিস্তান ও জর্দান।
বাংলাদেশ সময় গত শুক্রবার দুপুর ২টায় শুরু হওয়া নির্বাচনের প্রথম রাউন্ডে শহীদুল দ্বিতীয় হয়েছিলেন। প্রথমদিকেই ফিলিপাইন ও জর্দান তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেয়। চতুর্থ রাউন্ডেও শহীদুল দ্বিতীয় অবস্থানে থাকেন। এই রাউন্ড শেষে আফগানিস্তান প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নিলে শহীদুল প্রথম স্থানে চলে আসেন।
অভিবাসন দুনিয়ার পরিচিত মুখ শহীদুল আইওএমে ১১ বছর বিভিন্ন উচ্চপদে কর্মরত ছিলেন। তিনি ২০১২ সালে এ সংস্থা ছাড়েন এবং ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে নিযুক্ত হন।

 

 

/এসএসজেড/এইচআই/

লাইভ

টপ