গুজব ও গণপিটুনিতে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে: ওবায়দুল কাদের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৩:৫১, জুলাই ২৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:০৪, জুলাই ২৪, ২০১৯

সেতু ভবনে ওবায়দুল কাদেরছেলেধরা সংক্রান্ত গুজবের কারণে গণপিটুনি ও প্রাণহানির ঘটনার পেছনে কোনও অসৎ উদ্দেশ্য আছে কিনা সরকার তা খতিয়ে দেখছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘ছেলেধরা সংক্রান্ত গুজবে ইতোমধ্যে কয়েকজনের প্রাণহানি ঘটেছে। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক এবং মর্মান্তিক। এসব ঘটনার পেছনে কোনও চক্রান্ত বা অসৎ উদ্দেশ্য রয়েছে কিনা তা সরকার গভীরভাবে খতিয়ে দেখছে। ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রত্যেককে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।’

বুধবার (২৪ জুলাই) সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সমস্ত ঘটনায় যারা অপরাধী তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হচ্ছে না কেন জানতে চাইলে কাদের বলেন, রাতারাতি শাস্তি দেওয়া সম্ভব নয়। এটা আইনের একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সম্পন্ন করতে হয়। এরসঙ্গে অনেক বিষয় জড়িত। তবে অপরাধী প্রত্যেককে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

কাদের আরও বলেন, আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়ার অধিকার কারোর নেই। এটা অপরাধ। কোনও অপপ্রচার বা গুজবে কান না দিতে জনগণকে আহ্বান জানান কাদের।

মন্ত্রী আরও বলেন, গুজব রটিয়ে গণপিটুনির মতো ঘটনা রোধে সরকার কঠোর অবস্থানে আছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং আইজিসহ সংশ্লিষ্টরা এসব বিষয় প্রতিরোধে যথাযথ পদক্ষেপ নিচ্ছেন। তাছাড়া গুজব এবং অপপ্রচার বিষয়ে জনসচেতনতা বাড়াতে সরকারের মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, দলীয় নেতাকর্মীদের নিজ নিজ এলাকায় সভা সমাবেশের মাধ্যমে জনসচেতনতা বাড়াতে দলীয়ভাবে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সংসদের হুইপের মাধ্যমে সংসদ সদস্যদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানান কাদের।

/এসএমএ/টিটি/এমএমজে/

লাইভ

টপ