এনআরসি ইস্যুতে চোখ-কান খোলা রাখছে বাংলাদেশ: পররাষ্ট্র সচিব

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৫:০৫, অক্টোবর ০৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:১১, অক্টোবর ০৬, ২০১৯

ভারতের আসামের জাতীয় নাগরিক তালিকা (এনআরসি) নিয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার দিল্লিতে এক সংবাদ সম্মেলনে দুই নেতার এ সংক্রান্ত আলোচনার প্রসঙ্গ তুলে ধরেন পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক। তিনি জানান, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী এনআরসি ইস্যুকে অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে তুলে ধরলেও এ ব্যাপারে বাংলাদেশ চোখ-কান খোলা রেখেছে।


উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ৩১ আগস্ট প্রকাশিত ভারতের আসাম রাজ্যের চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা (এনআরসি) থেকে বাদ পড়েছেন রাজ্যের ১৯ লাখ ৬ হাজার ৬৫৭ জন বাসিন্দা। ২০১৮ সালের বিধানসভা নির্বাচন এবং ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদির দল বিজেপির ইশতেহারে অন্যতম ইস্যু ছিল এই নাগরিক তালিকা চূড়ান্ত করা। সে সময় ‘অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের’ দেশ থেকে তাড়ানোর হুমকি দিয়েছিলেন বিজেপি নেতারা। অমিত শাহ তার বক্তব্যে অবৈধ মুসলিম অভিবাসী বলতে তাদের বাংলাদেশি হিসেবে ইঙ্গিত করেন। তবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সে সময় বলেছেন, তার দেশের জাতীয় নাগরিক তালিকা (এনআরসি) নিয়ে বাংলাদেশের উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।

শনিবার স্থানীয় সময় বেলা সাড়ে ১১টায় দিল্লির হায়দরাবাদ হাউসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হন শেখ হাসিনা। ওই বৈঠকে নরেন্দ্র মোদির কাছে এনআরসি’র বিষয়টি উত্থাপন করেন তিনি। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক বলেন, ‘আমাদের বলা হয়েছে, এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। আমাদের সম্পর্ক এখন খুবই ভালো। তবে এখন আমরা চোখ-কান খোলা রাখছি।’

কথিত বাংলাদেশি ‘অনুপ্রবেশকারী’দের তাড়িয়ে দেওয়ার যে হুমকি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ দিয়েছিলেন, সে প্রসঙ্গে শহীদুল বলেন, ‘এই অবস্থায় কোনও সংকট তৈরি করা উচিত নয় এবং আমাদের অপেক্ষা করতে হবে, আর পরিস্থিতির দিকে নজর রাখতে হবে।’

সরকারি সূত্র জানিয়েছে, ভারতের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে বলা হয়েছে, চূড়ান্ত এনআরসি প্রকাশের বিষয়টি আদালতের পর্যবেক্ষণে হয়েছে ও পরিস্থিতির চূড়ান্ত চিত্র এখনও সামনে আসেনি। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশের ওই সচিব বলেন, ‘এমন বাস্তবতায় চিন্তিত নয় বাংলাদেশ। আমরা মনে করি, এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছেন, তালিকায় প্রত্যেকের অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিত করতেই এনআরসি প্রকাশ করা হয়েছে।’

/এইচকে/বিএ/এমএমজে/

লাইভ

টপ