ঢাকা-ইইউ বৈঠক: আবরার হত্যা নিয়ে আলোচনায় প্রস্তুত সরকার

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০২:০০, অক্টোবর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:০১, অক্টোবর ১৪, ২০১৯

আসন্ন ঢাকা-ইউরোপীয় ইউনিয়ন যৌথ কমিশনের বৈঠকে আবরার হত্যাকাণ্ড নিয়ে আলোচনার জন্য প্রস্তুত বাংলাদেশ সরকার। আবরার হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে ইউরোপের দেশগুলোর দৃষ্টিভঙ্গির সঙ্গে সরকার একমত নয়। আর বৈঠকে একমত না হওয়ার কারণ জানানোর পাশাপাশি এ বিষয়ে নিজেদের অবস্থানও তুলে ধরবে সরকার।

এ ব্যাপারে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘ইউরোপের দেশগুলো বিষয়টিকে (আবরার হত্যাকাণ্ড) মতপ্রকাশের স্বাধীনতার লেন্স দিয়ে দেখছে—যেটি ঠিক বলে আমরা মনে করি না।’ এ ছাড়া, এর সঙ্গে নন-স্টেট অ্যাক্টর বা সরকারের বাইরের শক্তি জড়িত এবং এক্ষেত্রে সরকার তার করণীয় পালন করছে বলেও জানান তিনি।

মন্ত্রণালয়ের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘সরকারের দায়িত্ব হচ্ছে—প্রিভেনশন ও প্রসিকিউশন। বিষয়টি ঠেকানোর জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কী করেছে সেটি তারা ভালো বলতে পারবে। কিন্তু বিচার প্রক্রিয়া সম্পাদনে সরকারের চেষ্টার কোনও কমতি নেই।’

তিনি জানান, ইউরোপের দেশগুলো মনে করে—মতপ্রকাশের জন্য এই হত্যাকাণ্ড হয়েছে, কিন্তু আমরা মনে করি—তারা তদন্ত শেষ হওয়ার আগেই একটি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে।

তিনি বলেন, ‘তদন্ত শেষ হওয়ার পরই আমরা জানতে পারবো, এটি (আবরার হত্যাকাণ্ড) মতপ্রকাশের কারণে নাকি পূর্বশত্রুতা বা অন্য কারণে হয়েছে। আমরা আমাদের অবস্থান এবং এ বিষয়ে সরকার কী করছে সেটি জানাবো।’

যৌথ কমিশনের বৈঠক আগামী ২১ অক্টোবর অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে অনুষ্ঠিত হবে এবং এরপর একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হবে বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, ইতোমধ্যে আবরার হত্যাকাণ্ড নিয়ে জার্মানি ও যুক্তরাজ্য বিবৃতি দিয়েছে; সেখানে মতপ্রকাশের স্বাধীনতার বিষয়টিতে জোর দেওয়া হয়েছে। তবে তাদের সঙ্গে আলোচনা করে সরকার এ বিষয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে।

আরও একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘এ ধরনের বিবৃতি বিচারিক প্রক্রিয়ার জন্য ভালো না। কারণ দ্রুততার সঙ্গে তদন্ত চলছে এবং অভিযুক্তদের অনেককে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

/এসএসজেড/এমএ/

লাইভ

টপ